ঢাকা ০১:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




সৌদি যুবরাজের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ ট্রাম্প জামাতার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:৫৭:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ ১২১ বার পড়া হয়েছে

সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যাকাণ্ডের পরেও সৌদি যুবরাজ মোহম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে আলাপচারিতা চালিয়ে গেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা এবং তার ঊর্ধ্বতন উপদেষ্টা জারেড কুশনার। নিউইয়র্ক টাইমসের বরাত দিয়ে রবিবার এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।

খাসোগির মৃত্যুর পর ‘উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে’ কি করতে হবে এই সম্পর্কে সৌদি যুবরাজকে পরামর্শ দিতেন জারেড কুশনার। এই সম্পর্কে অবগত আছেন এমন একটি সৌদি সূত্র নিউইয়র্ক টাইমসকে এই তথ্য দিয়েছেন।

হোয়াইট হাউসের প্রটোকল অনুযায়ী বিদেশি কোনো নেতার সঙ্গে কথা বলার সময় জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন। তবে কুশনার নিয়মের বাইরে গিয়ে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও সৌদির দুজন ব্যক্তির বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে নিউইয়র্ক টাইমস।

হোয়াইট হাউস কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানান, সৌদি যুবরাজ ও অন্যান্য বিদেশি নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার সময় নিখুঁতভাবে প্রটোকল ও অন্যান্য নির্দেশিকা মেনে চলেন। তবে হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা সৌদি যুবরাজ ও কুশনারের আলাপ-আলোচনার বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়নি।

তুরস্কের ইস্তাম্বুকে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে গিয়ে জামাল খাসোগি নিখোঁজ হওয়ার এক সপ্তাহ পর কুশনার ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন কেলি সৌদি যুবরাজের সঙ্গে কথা বলেছেন।

হোয়াইট হাইসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেছেন, জামাল খাসোগি নিখোঁজের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চেয়ে এবং তদন্ত প্রক্রিয়া যেন আরও স্বচ্ছ হয় সে বিষয়ে সৌদি যুবরাজের সঙ্গে কথা বলেছেন তারা।

২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন সৌদির খ্যাতনামা সাংবাদিক খাসোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছে, খাসোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতর সৌদি চরেরা হত্যা করেছে। গত বছর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতা গ্রহণের পর রোষানলে পড়েন খাসোগি। তিনি দেশ ছেড়ে স্বেচ্ছানির্বাসনে চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে। ওয়াশিংটন পোস্টে যুবরাজ মোহাম্মদের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে একের পর এক কলাম লেখেন। অভিযোগ উঠেছে, যুবরাজের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এ হত্যা সংঘটিত হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সৌদি যুবরাজের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ ট্রাম্প জামাতার

আপডেট সময় : ০১:৫৭:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যাকাণ্ডের পরেও সৌদি যুবরাজ মোহম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে আলাপচারিতা চালিয়ে গেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা এবং তার ঊর্ধ্বতন উপদেষ্টা জারেড কুশনার। নিউইয়র্ক টাইমসের বরাত দিয়ে রবিবার এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন।

খাসোগির মৃত্যুর পর ‘উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে’ কি করতে হবে এই সম্পর্কে সৌদি যুবরাজকে পরামর্শ দিতেন জারেড কুশনার। এই সম্পর্কে অবগত আছেন এমন একটি সৌদি সূত্র নিউইয়র্ক টাইমসকে এই তথ্য দিয়েছেন।

হোয়াইট হাউসের প্রটোকল অনুযায়ী বিদেশি কোনো নেতার সঙ্গে কথা বলার সময় জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন। তবে কুশনার নিয়মের বাইরে গিয়ে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও সৌদির দুজন ব্যক্তির বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে নিউইয়র্ক টাইমস।

হোয়াইট হাউস কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানান, সৌদি যুবরাজ ও অন্যান্য বিদেশি নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার সময় নিখুঁতভাবে প্রটোকল ও অন্যান্য নির্দেশিকা মেনে চলেন। তবে হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা সৌদি যুবরাজ ও কুশনারের আলাপ-আলোচনার বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়নি।

তুরস্কের ইস্তাম্বুকে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে গিয়ে জামাল খাসোগি নিখোঁজ হওয়ার এক সপ্তাহ পর কুশনার ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন কেলি সৌদি যুবরাজের সঙ্গে কথা বলেছেন।

হোয়াইট হাইসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেছেন, জামাল খাসোগি নিখোঁজের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চেয়ে এবং তদন্ত প্রক্রিয়া যেন আরও স্বচ্ছ হয় সে বিষয়ে সৌদি যুবরাজের সঙ্গে কথা বলেছেন তারা।

২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন সৌদির খ্যাতনামা সাংবাদিক খাসোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছে, খাসোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতর সৌদি চরেরা হত্যা করেছে। গত বছর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতা গ্রহণের পর রোষানলে পড়েন খাসোগি। তিনি দেশ ছেড়ে স্বেচ্ছানির্বাসনে চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে। ওয়াশিংটন পোস্টে যুবরাজ মোহাম্মদের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে একের পর এক কলাম লেখেন। অভিযোগ উঠেছে, যুবরাজের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এ হত্যা সংঘটিত হয়েছে।