ঢাকা ০৩:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo টাটা মটরস বাংলাদেশে উদ্বোধন করলো টাটা যোদ্ধা Logo আশা শিক্ষা কর্মসূচী কর্তৃক অভিভাবক মতবিনিময় সভা Logo গণপূর্ত প্রধান প্রকৌশলীর গাড়ি চাপায় পিষ্ট সহকারী প্রকৌশলী -উত্তাল গণপূর্ত Logo শাবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ Logo সওজের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী নাহিনুরের সীমাহীন সম্পদ ও অনিয়ম -পর্ব-০১ Logo তামাক সেবনের আলাদা কক্ষ বানালেন গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী: রয়েছে দুর্নীতির পাহাড়সম অভিযোগ! Logo দেশের সর্বোচ্চ আদালতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি: কালবে সর্বোচ্চ পদ দখলে রেখেছে আগস্টিন! Logo আইআইএফসি ও মার্কটেল বাংলাদেশ’র মধ্যে কৌশলগত সহযোগিতা ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর Logo ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তর পরিদর্শনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী Logo সর্বজনীন পেনশন প্রত্যাহারে শাবি শিক্ষক সমিতি মৌন মিছিল ও কালোব্যাজ ধারণ




ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ক্রীড়াবিদদের ফলাফল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৩:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ ৭৯ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক |

রাজনীতির আঙিনায় ক্রীড়াবিদদের বিচরণ নতুন কিছু নয়। বিশ্বজোড়া এমন উদাহরণ রয়েছে বিস্তর। বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট অধিনায়ক ইমরান খানের খেলা ছাড়ার পর রাজনীতিতে আসা, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন হওয়ার নজির এখন কার্যত লোকগাথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভারতেও খেলার জগৎ থেকে সংসদীয় রাজনীতিতে আসার উদাহরণ রয়েছে প্রচুর।

হয়ে গেলো ভারতের লোকসভা নির্বাচন। তাতে অংশ নিয়েছিলেন পাঁচজন বর্তমান ও সাবেক ক্রীড়াবিদ। একনজরে দেখে নেওয়া যাক জনতার রায় তাদের কী ভাগ্য নির্ধারণ করেছে।

গৌতম গম্ভীর: জোড়া বিশ্বকাপজয়ী (২০০৭ টি- টোয়েন্টি ও ২০১১ ওয়ানডে) ভারতীয় ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর গত মার্চ মাসে বিজেপির হাত ধরে সক্রিয় রাজনীতিতে নতুন ইনিংস শুরু করেন। গত বছর ডিসেম্বরে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া তারকা ক্রিকেটার এবার পূর্ব দিল্লি লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ৫৫.৩ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনি পরাজিত করেছেন নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের অরবিন্দর সিং লাভলিকে।

বিজেন্দ্র সিং: অলিম্পিকের ব্রোঞ্জ পদকজয়ী বক্সার এবার দক্ষিণ দিল্লি লোকসভা কেন্দ্র থেকে জাতীয় কংগ্রেসের টিকিটে লড়াইয়ে নেমেছিলেন। মাত্র ১৫.২ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনি বিজেপির রমেশ বিধুরি ও আম আদমি পার্টির রাঘব চাধার পিছনে তৃতীয়স্থানে থেকে লড়াই শেষ করেছেন।

রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর: অলিম্পিকে রৌপ্যজয়ী শ্যুটার বিজেপির টিকিটে ২০১৪ লোকসভা ভোটে জিতে দেশের ক্রীড়ামন্ত্রী হয়েছিলেন। এবারও বিজেপির টিকিটেই জয়পুর গ্রামীণ লোকসভা কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়ে জয়লাভ করেছেন। সব মিলিয়ে ৬৩.৮৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন তিনি।

কৃষ্ণা পুনিয়া: দিল্লি কমনওয়েলথ গেমসের সোনাজয়ী ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড অ্যাথলেট কৃষ্ণা পুনিয়া এবার কংগ্রেসের টিকিটে রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। ৩৩.৮ শতাংশ ভোট পেয়ে রাঠোরের কাছে হার মানতে হয় তাঁকে।

কীর্তি আজাদ: ৮৩’র বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য কীর্তি আজাদ ২০১৪ লোকসভা ভোটে লড়েছিলেন বিজেপির হয়ে। জিতেওছিলেন। এবার কংগ্রেসেহ টিকিটে ধানবাদ লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াইয়ে নেমেছিলেন তিনি। তবে বিজেপির পশুপতি নাথ সিংয়ের কাছে হার মানতে হয় তাঁকে। আজাদ ৩১.২ শতাংশ ভোট পেয়েছেন এবার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ক্রীড়াবিদদের ফলাফল

আপডেট সময় : ১০:৩৩:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক |

রাজনীতির আঙিনায় ক্রীড়াবিদদের বিচরণ নতুন কিছু নয়। বিশ্বজোড়া এমন উদাহরণ রয়েছে বিস্তর। বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট অধিনায়ক ইমরান খানের খেলা ছাড়ার পর রাজনীতিতে আসা, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন হওয়ার নজির এখন কার্যত লোকগাথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভারতেও খেলার জগৎ থেকে সংসদীয় রাজনীতিতে আসার উদাহরণ রয়েছে প্রচুর।

হয়ে গেলো ভারতের লোকসভা নির্বাচন। তাতে অংশ নিয়েছিলেন পাঁচজন বর্তমান ও সাবেক ক্রীড়াবিদ। একনজরে দেখে নেওয়া যাক জনতার রায় তাদের কী ভাগ্য নির্ধারণ করেছে।

গৌতম গম্ভীর: জোড়া বিশ্বকাপজয়ী (২০০৭ টি- টোয়েন্টি ও ২০১১ ওয়ানডে) ভারতীয় ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর গত মার্চ মাসে বিজেপির হাত ধরে সক্রিয় রাজনীতিতে নতুন ইনিংস শুরু করেন। গত বছর ডিসেম্বরে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া তারকা ক্রিকেটার এবার পূর্ব দিল্লি লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ৫৫.৩ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনি পরাজিত করেছেন নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের অরবিন্দর সিং লাভলিকে।

বিজেন্দ্র সিং: অলিম্পিকের ব্রোঞ্জ পদকজয়ী বক্সার এবার দক্ষিণ দিল্লি লোকসভা কেন্দ্র থেকে জাতীয় কংগ্রেসের টিকিটে লড়াইয়ে নেমেছিলেন। মাত্র ১৫.২ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনি বিজেপির রমেশ বিধুরি ও আম আদমি পার্টির রাঘব চাধার পিছনে তৃতীয়স্থানে থেকে লড়াই শেষ করেছেন।

রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোর: অলিম্পিকে রৌপ্যজয়ী শ্যুটার বিজেপির টিকিটে ২০১৪ লোকসভা ভোটে জিতে দেশের ক্রীড়ামন্ত্রী হয়েছিলেন। এবারও বিজেপির টিকিটেই জয়পুর গ্রামীণ লোকসভা কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়ে জয়লাভ করেছেন। সব মিলিয়ে ৬৩.৮৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন তিনি।

কৃষ্ণা পুনিয়া: দিল্লি কমনওয়েলথ গেমসের সোনাজয়ী ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড অ্যাথলেট কৃষ্ণা পুনিয়া এবার কংগ্রেসের টিকিটে রাজ্যবর্ধন সিং রাঠোরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলেন। ৩৩.৮ শতাংশ ভোট পেয়ে রাঠোরের কাছে হার মানতে হয় তাঁকে।

কীর্তি আজাদ: ৮৩’র বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য কীর্তি আজাদ ২০১৪ লোকসভা ভোটে লড়েছিলেন বিজেপির হয়ে। জিতেওছিলেন। এবার কংগ্রেসেহ টিকিটে ধানবাদ লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াইয়ে নেমেছিলেন তিনি। তবে বিজেপির পশুপতি নাথ সিংয়ের কাছে হার মানতে হয় তাঁকে। আজাদ ৩১.২ শতাংশ ভোট পেয়েছেন এবার।