ঢাকা ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo পুলিশের হামলার পরও ৬ ঘন্টা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধে কুবি শিক্ষার্থীর Logo শাবিপ্রবির প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. কবির হোসেনের সফলতার একবছর পূর্তি Logo এবার আলোচনায় আওয়ামী লীগের থানা ওয়ার্ড কমিটিতে পদ বাণিজ্যে! Logo প্রত্যয় স্কিম প্রত্যাহার দাবি Logo শাবি উপাচার্যের কৃতিত্ব; মাত্র ৪বছরেই আয়োজন করছেন ২ বার কনভোকেশন Logo কুবিতে সমাপ্ত হলো আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব Logo পর্দা নামলো থিয়েটার কুবি আয়োজিত দুই দিনের আন্তর্জাতিক নাট্য উৎসব Logo রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ড্যান্ট শহীদ উল্লাহর সম্পদের খনি  Logo সাবরেজিস্ট্রার অফিসের হিসেবে ৬৭৭ কোটি টাকার নয় ছয় Logo সাংবাদিকদের নিয়ে মতিউরের স্ত্রীর বিতর্কিত বক্তব্যের প্রতিবাদ: হাজার কোটি টাকা মানহানী মামলার হুমকি বিএমইউজে’ র




যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগের সভায় উত্তেজনা, সিদ্ধান্ত ছাড়াই মুলতবি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৩:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মে ২০১৯ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

প্রবাস ডেস্ক;
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রতি জ্যাকসন হাইটস্থ নিউইয়র্কের পালকী সেন্টারে দেশটির আ.লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সভা হয়।

সভার শুরুতেই সিকিউরিটি দিয়ে আইডি ও নামের তালিকা দেখে প্রবেশে বাধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়। এ ছাড়া সেখানে ধাক্কাধাক্কি, হুমকি-পাল্টা হুমকির অভিযোগ আনেন নেতাকর্মীরা।

আলোচনার শুরুতেই সভার এজেন্ডা ও মিটিং ডাকার বৈধতা নিয়ে গঠনতান্ত্রিক ব্যাখ্যা দাবি করে সভাপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। ইতোপূর্বে দুটি কার্যকরী সভা মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে। কোনো প্রকার সিদ্ধান্ত ছাড়া এটিও কেন মুলতবি ঘোষণা করা হবে? কেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের এজেন্ডা নেই তা জানতে চাওয়া হয়।

বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও কোন ক্ষমতাবলে শূন্যপদ পূরণ হবে না জানতে চান সদস্যরা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও ক্ষমতা আঁকড়ে ধরার এই হীন প্রচেষ্টা বন্ধের দাবি জানানো হয়।

সভায় দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত উত্তেজনা বিরাজ করে। এ ছাড়া কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই সভাপতি সভা মুলতবি ঘোষণা করেন বলে অভিযোগও আসে। রমজান ও ঈদের পর পুনরায় সভা ডাকার আহ্বান করে নেতাকর্মীরা। বলা হয়, আগামী সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি করার আহ্বান জানানো হয়।

৮ বছর পরে এসে পদ-পদবীর প্রলোভন দেখিয়ে ও অর্থের বিনিময়ে কমিটিতে অন্তর্ভুক্তি এবং পদোন্নতি মেনে নেয়া হবে না বলে বক্তারা কঠোর হুঁশিয়ারি দেন। গত এক বছরে পর পর তিনটি কার্যকরী কমিটির সভা কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হওয়ায় অধিকাংশ নেতাকর্মী হতাশা ব্যক্ত করেন।

এ বিষয়ে বিবৃতি দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, বশারত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন দত্ত আব্দুর, সাংগঠনিক সম্পাদক রহিম বাদশা, আইন সম্পাদক, অ্যাডভোকেট শাহ মো. বকতিয়ার আলী, দফতর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, জনসংযোগ সম্পাদক কাজী কয়েস আহমেদ, শিক্ষা সম্পাদক এম.এ. করিম জাহাঙ্গীর।

এ ছাড়া মানবাধিকার সম্পাদক মেজবা আহমেদ, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদ ফরিদ আলম, সদস্য, শরীফ কামরুল আলম হীরা, সদস্য কায়কোবাদ খাঁন, সদস্য আসাফ মাসুক,সদস্য গাজী মোহাম্মদ আলী লিটু, সদস্য ইলিয়ার রহমান, সদস্য হোসেন রানা, সদস্য কামাল আহমেদ, সদস্য সাজু আহমেদ ও সদস্য, আব্দুস শহিদ দুদু প্রমুখ বিবৃতি দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগের সভায় উত্তেজনা, সিদ্ধান্ত ছাড়াই মুলতবি

আপডেট সময় : ০৫:৩৩:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মে ২০১৯

প্রবাস ডেস্ক;
যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্প্রতি জ্যাকসন হাইটস্থ নিউইয়র্কের পালকী সেন্টারে দেশটির আ.লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সভা হয়।

সভার শুরুতেই সিকিউরিটি দিয়ে আইডি ও নামের তালিকা দেখে প্রবেশে বাধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়। এ ছাড়া সেখানে ধাক্কাধাক্কি, হুমকি-পাল্টা হুমকির অভিযোগ আনেন নেতাকর্মীরা।

আলোচনার শুরুতেই সভার এজেন্ডা ও মিটিং ডাকার বৈধতা নিয়ে গঠনতান্ত্রিক ব্যাখ্যা দাবি করে সভাপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। ইতোপূর্বে দুটি কার্যকরী সভা মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে। কোনো প্রকার সিদ্ধান্ত ছাড়া এটিও কেন মুলতবি ঘোষণা করা হবে? কেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের এজেন্ডা নেই তা জানতে চাওয়া হয়।

বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও কোন ক্ষমতাবলে শূন্যপদ পূরণ হবে না জানতে চান সদস্যরা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও ক্ষমতা আঁকড়ে ধরার এই হীন প্রচেষ্টা বন্ধের দাবি জানানো হয়।

সভায় দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত উত্তেজনা বিরাজ করে। এ ছাড়া কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই সভাপতি সভা মুলতবি ঘোষণা করেন বলে অভিযোগও আসে। রমজান ও ঈদের পর পুনরায় সভা ডাকার আহ্বান করে নেতাকর্মীরা। বলা হয়, আগামী সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি করার আহ্বান জানানো হয়।

৮ বছর পরে এসে পদ-পদবীর প্রলোভন দেখিয়ে ও অর্থের বিনিময়ে কমিটিতে অন্তর্ভুক্তি এবং পদোন্নতি মেনে নেয়া হবে না বলে বক্তারা কঠোর হুঁশিয়ারি দেন। গত এক বছরে পর পর তিনটি কার্যকরী কমিটির সভা কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হওয়ায় অধিকাংশ নেতাকর্মী হতাশা ব্যক্ত করেন।

এ বিষয়ে বিবৃতি দেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, বশারত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন দত্ত আব্দুর, সাংগঠনিক সম্পাদক রহিম বাদশা, আইন সম্পাদক, অ্যাডভোকেট শাহ মো. বকতিয়ার আলী, দফতর সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, জনসংযোগ সম্পাদক কাজী কয়েস আহমেদ, শিক্ষা সম্পাদক এম.এ. করিম জাহাঙ্গীর।

এ ছাড়া মানবাধিকার সম্পাদক মেজবা আহমেদ, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদ ফরিদ আলম, সদস্য, শরীফ কামরুল আলম হীরা, সদস্য কায়কোবাদ খাঁন, সদস্য আসাফ মাসুক,সদস্য গাজী মোহাম্মদ আলী লিটু, সদস্য ইলিয়ার রহমান, সদস্য হোসেন রানা, সদস্য কামাল আহমেদ, সদস্য সাজু আহমেদ ও সদস্য, আব্দুস শহিদ দুদু প্রমুখ বিবৃতি দেন।