ঢাকা ০৩:১৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




টাঙ্গাইলে এসআই জেসমিনের বিরুদ্ধে চাঁদাদাবির অভিযোগ, থানা ঘেরাও

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:১৮:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৯ ৬৮ বার পড়া হয়েছে

মহব্বত হোসেন, টাঙ্গাইল;

টাঙ্গাইল মডেল থানার এক উপপরিদর্শকের (এসআই) বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও হয়রানির অভিযোগে শনিবার রাতে থানা ঘেরাও করে প্রতিবাদ ও বিচার দাবি করেছে সদর উপজেলার বেলতা গ্রামের লোকজন। এ সময় তারা ওই এসআইয়ের প্রত্যাহার চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। পরে পুলিশ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রাত ৯টার দিকে থানা চত্বর ত্যাগ করে।

এলাকাবাসী অভিযোগ, কিছুদিন আগে বেলতা গ্রামে একটি হত্যাকাণ্ড ঘটে। সেই হত্যাকাণ্ডের তদন্তের নামে টাঙ্গাইল মডেল থানার এসআই জেসমিনের সোর্স পরিচয়ে এক ব্যক্তি তার (জেসমিন) নাম ধরে স্থানীয়দের কারো কারো কাছ থেকে মোটা চাঁদা আদায় করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তাকে ওই হত্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে বলে শাসানো হয়। এছাড়া গ্রামের মানুষদের বিভিন্নভাবে হয়রানিও করা হয়। এরই সূত্র ধরে শনিবার বিকেলের দিকে ওই সোর্স বেলতা গ্রামে গিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে। এসআই জেসমিন তাকে উদ্ধার করতে গেলে গ্রামবাসী তাকেও ঘিরে ধরে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে পৌছে তাদের উদ্ধার করে। সন্ধ্যার পর গ্রামবাসী একত্র হয়ে জেসমিনের প্রত্যাহার দাবিতে থানা ঘেরাও করে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউর রহমান বলেন, থানা ঘেরাও না, গ্রামবাসী অভিযোগ দিতে এসেছিল। তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারো কাছ থেকে টাকা নেওয়া কোনোভাবে বিধিসম্মত নয়। এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




টাঙ্গাইলে এসআই জেসমিনের বিরুদ্ধে চাঁদাদাবির অভিযোগ, থানা ঘেরাও

আপডেট সময় : ০১:১৮:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৯

মহব্বত হোসেন, টাঙ্গাইল;

টাঙ্গাইল মডেল থানার এক উপপরিদর্শকের (এসআই) বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও হয়রানির অভিযোগে শনিবার রাতে থানা ঘেরাও করে প্রতিবাদ ও বিচার দাবি করেছে সদর উপজেলার বেলতা গ্রামের লোকজন। এ সময় তারা ওই এসআইয়ের প্রত্যাহার চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। পরে পুলিশ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রাত ৯টার দিকে থানা চত্বর ত্যাগ করে।

এলাকাবাসী অভিযোগ, কিছুদিন আগে বেলতা গ্রামে একটি হত্যাকাণ্ড ঘটে। সেই হত্যাকাণ্ডের তদন্তের নামে টাঙ্গাইল মডেল থানার এসআই জেসমিনের সোর্স পরিচয়ে এক ব্যক্তি তার (জেসমিন) নাম ধরে স্থানীয়দের কারো কারো কাছ থেকে মোটা চাঁদা আদায় করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তাকে ওই হত্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হবে বলে শাসানো হয়। এছাড়া গ্রামের মানুষদের বিভিন্নভাবে হয়রানিও করা হয়। এরই সূত্র ধরে শনিবার বিকেলের দিকে ওই সোর্স বেলতা গ্রামে গিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে। এসআই জেসমিন তাকে উদ্ধার করতে গেলে গ্রামবাসী তাকেও ঘিরে ধরে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে পৌছে তাদের উদ্ধার করে। সন্ধ্যার পর গ্রামবাসী একত্র হয়ে জেসমিনের প্রত্যাহার দাবিতে থানা ঘেরাও করে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউর রহমান বলেন, থানা ঘেরাও না, গ্রামবাসী অভিযোগ দিতে এসেছিল। তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারো কাছ থেকে টাকা নেওয়া কোনোভাবে বিধিসম্মত নয়। এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।