ঢাকা ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার দাবিতে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে শাবি শিক্ষক সমিতি Logo কুলাউড়া স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের কর্মশালা ও অরিয়েন্টেশন সম্পন্ন Logo এমপি আনার খুন: রহস্যময় রূপে শীর্ষ দুই ব্যবসায়ী Logo রূপালী ব্যাংকের ডিজিএম কর্তৃক সহকর্মী নারীকে যৌন হয়রানি: ধামাচাপা দিতে মরিয়া তদন্ত কমিটি Logo প্রতিবন্ধী ভাতার টাকা হাতিয়ে বহাল তবিয়তে মাদারীপুরের দুই সহকারী সমাজসেবা অফিসারl Logo যমুনা লাইফের গ্রাহক প্রতারণায় ‘জড়িতরা’ কে কোথায় Logo ঢাকাস্থ ভোলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আহসান কামরুল, সম্পাদক জিয়াউর রহমান Logo টাটা মটরস বাংলাদেশে উদ্বোধন করলো টাটা যোদ্ধা Logo আশা শিক্ষা কর্মসূচী কর্তৃক অভিভাবক মতবিনিময় সভা Logo গণপূর্ত প্রধান প্রকৌশলীর গাড়ি চাপায় পিষ্ট সহকারী প্রকৌশলী -উত্তাল গণপূর্ত




নেশার টাকা না পেয়ে মা ও নানিকে কুপিয়ে হত্যা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০৮:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯ ৭৩ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি |
ঝিনাইদহের মহেশপুরে মা ও নানিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ইমরান হোসেন (২৫) নামের এক যুবক। তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানা গেছে।

শুক্রবার ভোরে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে দুজনকে এই দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। নিহতরা হলেন- উপজেলার নওদা গ্রামের নূর মোহাম্মদের স্ত্রী শামসুন্নাহার (৭৭) ও মেয়ে মর্জিনা বেগম (৫০)।

মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাশেদুল আলম জানান, রাতে ইমরান তার মায়ের কাছে টাকা চায়। টাকা না দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে মা ও নানিকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে যশোর সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, মহেশপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের কারিগরি বিষয়ের শিক্ষক মর্জিনা বেগম তার সন্তান ইমরান ও তার মা শামসুন্নাহারকে নিয়ে বসবাস করতেন। ছেলে ইমরান ছিল মানসিক রোগী। বিভিন্ন সময় সে তার মা ও নানিকে শারীরিক নির্যাতন করতো।

তিনি জানান, ২০০৪ সালে যখন তার মায়ের ডিভোর্স হয়, সে বছরে ইমরান হোসেন তার দাদাকে মারধর করে। পরবর্তীতে তাকে দুই দফা পাবনা মানসিক হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ওসি জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে চিৎকার শুনে লোকজন বাড়িতে গিয়ে দেখতে পান দুজনই ঘরের মেঝেতে পড়ে আছেন। ইমরান ওই সময় পালিয়ে যায়।

এদিকে এলাকাবাসী বলছে, ইমরান মাদকাসক্ত। টাকার জন্য প্রায়ই তার মাকে মারধর করতো। রাতেও তার মায়ের কাছে নেশার জন্য টাকা চেয়েছিল। টাকা না দেওয়ায় এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে ইমরান।

এ ঘটনায় ইমরান হোসেনকে আটকের চেষ্টা চলছে বলে ওসি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




নেশার টাকা না পেয়ে মা ও নানিকে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট সময় : ০২:০৮:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি |
ঝিনাইদহের মহেশপুরে মা ও নানিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ইমরান হোসেন (২৫) নামের এক যুবক। তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানা গেছে।

শুক্রবার ভোরে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে দুজনকে এই দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। নিহতরা হলেন- উপজেলার নওদা গ্রামের নূর মোহাম্মদের স্ত্রী শামসুন্নাহার (৭৭) ও মেয়ে মর্জিনা বেগম (৫০)।

মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাশেদুল আলম জানান, রাতে ইমরান তার মায়ের কাছে টাকা চায়। টাকা না দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে মা ও নানিকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে যশোর সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, মহেশপুর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের কারিগরি বিষয়ের শিক্ষক মর্জিনা বেগম তার সন্তান ইমরান ও তার মা শামসুন্নাহারকে নিয়ে বসবাস করতেন। ছেলে ইমরান ছিল মানসিক রোগী। বিভিন্ন সময় সে তার মা ও নানিকে শারীরিক নির্যাতন করতো।

তিনি জানান, ২০০৪ সালে যখন তার মায়ের ডিভোর্স হয়, সে বছরে ইমরান হোসেন তার দাদাকে মারধর করে। পরবর্তীতে তাকে দুই দফা পাবনা মানসিক হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

ওসি জানান, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে চিৎকার শুনে লোকজন বাড়িতে গিয়ে দেখতে পান দুজনই ঘরের মেঝেতে পড়ে আছেন। ইমরান ওই সময় পালিয়ে যায়।

এদিকে এলাকাবাসী বলছে, ইমরান মাদকাসক্ত। টাকার জন্য প্রায়ই তার মাকে মারধর করতো। রাতেও তার মায়ের কাছে নেশার জন্য টাকা চেয়েছিল। টাকা না দেওয়ায় এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে ইমরান।

এ ঘটনায় ইমরান হোসেনকে আটকের চেষ্টা চলছে বলে ওসি জানান।