• ২৮শে সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কে এই শমী কায়সার?? জেনে নিন তার আসল পরিচয়

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত এপ্রিল ২৬, ২০১৯, ১২:১০ অপরাহ্ণ
কে এই শমী কায়সার?? জেনে নিন তার আসল পরিচয়

কে এই শমী??শমীর আসল পরিচয় কি???

আদৌও কি শহীদ বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে????
     অনুসন্ধান করেছেন সিনিয়র সাংবাদিক ——- মোঃ হাসান

শহীদ বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে দাবিদার ও আওয়ামী লীগের উচ্ছিষ্ঠভোগী শমী কায়সার। অভিনেত্রী হিসেবে শমী কায়সার সবার কাছে পরিচিত। বিশেষ করে শহীদুল্লাহ কায়সারের নামের অংশ নিজের নামের শেষে যোগ করার কারণেই মুলত শমীকে মানুষ চিনে। তবে, আওয়ামীপন্থী মিডিয়ায় শমীর আগমন ঘটেছে এক নববুদ্ধিজীবী হিসেবে। বিভিন্ন টিভি টকশোতে গিয়ে সে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াতের নেতাদের চৌদ্দগোষ্ঠী উদ্ধারের চেষ্টা করে। তার বক্তব্য শুনলে মনে হয় যে, সে নিজেই একজন মুক্তিযোদ্ধা। অথচ মুক্তিযুদ্ধের সময় তার জন্মই হয়নি।

শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে দাবিদার কে এই শমী কায়সার? কি তার বংশ পরিচয়? তার কি আসলেই কোনো বংশ পরিচয় আছে? তার মা-খালাদের পরিচয় পাওয়া গেলেও সত্যিকার অর্থে তার কোনো পিতৃ পরিচয় পাওয়া যায়নি। অনেকে মনে করে শমীর বাবার কোনো পরিচয় নেই। বিস্তর অনুসন্ধানেও শমীর সঠিক বাবার পরিচয় পাওয়া যায়নি।

উইকিপিডিয়ায় শমীর পরিচয় দেয়া হয়েছে- সে ১৫ জানুয়ারি ১৯৬৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম শহীদুল্লাহ কায়সার ও মাতার নাম পান্না কায়সার। তার মা পান্না একজন লেখক এবং সাবেক সংসদ সদস্য। শমীর একজন ছোট ভাই আছেন, অমিতাভ কায়সার। তার মা বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি একিউএম বদরুদ্দুজা চৌধুরীর স্ত্রী মায়া পান্নার বোন। ফলে, শমী এবং রাজনীতিবিদ মাহি বি. চৌধুরী খালাতো ভাই-বোন।

শমী ১৯৯৯ সালে ভারতীয় নাগরিক ব্যবসায়ী অর্নব ব্যানার্জী রিঙ্গোকে ছলেবলে কৌশলে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেন। তবে পরবর্তীতে রিঙ্গো তার নিজের ধর্মে ফিরে যান। এর দুই বছর পর তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। পরবর্তীতে তিনি ২০০৮ সালের ২৪ জুলাই আওয়ামী লীগের আরেক দালাল হিসেবে পরিচিত মোহাম্মদ এ আরাফাতকে বিয়ে করেন।

এবার আসা যাক শমীর বাবার বংশের দিকে। শমীর দাবি তিনি শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে। আসলে শহীদুল্লাহ কায়সার কি তার আসল বাবা? শমী কি সেই প্রমাণ দেখাতে পারবেন? মোটেও না।

কারণ, ১৯৬৯ সালে বিয়ে হয় বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সার ও অধ্যাপিকা পান্না চৌধুরীর। তখন পান্না চৌধুরীর বয়স মাত্র ২২ বছর। শহীদুল্লাহ কায়সারকে গুম করা হয় ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর।

শহীদুল্লাহ কায়সারের সাথে তার স্ত্রীর সংসারের মেয়াদ প্রায় দুই বছর। এই দুই বছরে শহীদুল্লাহ কায়সারের দুইটি সন্তান হয়! এক, :- শমী কায়সার, জন্ম ১৫ জানুয়ারি ১৯৬৯ সালে। দুই, :- অমিতাভ কায়সার প্রকাশ অমি কায়সার।

সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হলো- ১৯৬৯ সালে শহীদুল্লাহ কায়সার পান্না চৌধুরীকে বিয়ে করেন। ঐ সালের কোন মাসে বিয়ে করেন সেটা জানা যায়নি। যদি ধরে নেওয়া হয় ঐ বছরের জানুয়ারি মাসেই তিনি বিয়ে করেছেন, তাহলেও সেই মাসের ১৫ তারিখেই কীভাবে শমী কায়সার জন্মগ্রহন করতে পারেন? বিয়ের এক মাসেই কী করে সন্তান জন্ম নেয়? তাছাড়া, ১৯৬৯-১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই সময়ের মধ্যে কিভাবে দুইটি সন্তান জন্ম দিতে পারে শহীদুল্লাহ কায়সার।

শমী শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে এটা কোনো যুক্তিতেই মিলে না। শমী তার মা পান্না চৌধুরীর গর্ভে এসেছিল শহীদুল্লাহ কায়সারের সঙ্গে বিয়ের আগেই। এখন শমীর আসল বাবার পরিচয় কি হবে সেটা গবেষণার দাবি রাখে।

আরো অনুসন্ধানে জানা যায় পান্না কায়সার গর্ভবতী হয়েছিলো তার এক খ্রিস্টান বয়ফ্রেন্ড দ্বারা যার নাম ছিলে জন ম্যাথিও সে ডাবির আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলো সে শহিদুল্লা হলের ৫০৮ নং ( পাচ তলার আট) রুমে থাকতো।এ ইতিহাস বেশ লম্বা। তবে তার মায়ের বিবাহের একমাসের মাথায় শমী কায়সারের জন্ম হয়েছিল এই কথা সবাই জানে।

অনুসন্ধান অনুসারে একটি প্রমানও পেয়ে গেছি বিস্তারিত নিচের ফটো থেকে দেখে নিন।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩৬
  • ১১:৫৩
  • ৪:১১
  • ৫:৫৬
  • ৭:০৯
  • ৫:৪৭
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!