ঢাকা ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




দুই দিনের ক্লাস বর্জন করলো কুবি শিক্ষক সমিতি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৪:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪ ১২৩ বার পড়া হয়েছে

সাত দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি দুই দিন ক্লাস বর্জন সহ মোট তিনটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সাধারণ সভা শেষে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ড. মাহমুদুল হাছান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

শিক্ষক সমিতির সাত দফা দাবিগুলো হলো- গত ১৯ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য কার্যালয়ে উপাচার্যের উপস্থিতিতে কিছু উচ্ছৃঙ্খল কর্মকর্তা, বহিরাগত সন্ত্রাসী ও কিছু অছাত্র কর্তৃক শিক্ষকদের উপর ন্যাক্কারজনক হামলায় নেতৃত্ব দানকারী কর্মকর্তা জনাব মোঃ জাকির হোসেনের সাময়িক বহিষ্কারপূর্বক সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তার ও জড়িত সকলের সর্বোচ্চ শান্তি নিশ্চিতকরণ এবং হামলায় মদদদানকারী প্রক্টর জনাব কাজী ওমর সিদ্দিকীর অপসারণ, ঢাকাস্থ গেস্টহাউজ শিক্ষক-কর্মকর্তাদের জন্য অবমুক্ত করা, অধ্যাপক গ্রেড-১ ও অধ্যাপক গ্রেড-২ পদে পদোন্নতির জন্য আবেদনকৃত শিক্ষকদের অবিলম্বে পদোন্নতির ব্যবস্থা করা, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মোতাবেক বিভিন্ন বিভাগে বিভাগীয় প্রধান ও অনুষদসমূহের ডিন নিয়োগ এবং ইতোমধ্যে আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়ে যেসকল বিভাগে বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ দেয়া হয়েছে তাদের প্রত্যাহার করা,
শিক্ষক নিয়োগ, পদোন্নতি ও স্থায়ীকরণের ক্ষেত্রে আইন বহির্ভূত অবৈধ শর্ত আরোপ করে জ্যেষ্ঠতা ক্ষুন্ন করার মাধ্যমে যে সীমাহীন বৈষম্য তৈরি করা হয়েছে দ্রুততম সময়ে সেসবের নিষ্পত্তিকরণ, ৯০তম সিন্ডিকেট সভায় গৃহীত বিতর্কিত শিক্ষাছুটি নীতিমালা রহিত করে পূর্বের নীতিমালা বহাল রাখা
৮৬তম সিন্ডিকেট সভায় অনুমোদিত স্থায়ীকরণ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত বাতিল করা।

উপরে উল্লিখিত সাত দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে শিক্ষক সমিতির নেয়া তিনটি তিনটি সিদ্ধান্ত হলো- বুধ ও বৃহস্পতিবার ক্লাস বর্জন (পূর্ব ঘোষিত চূড়ান্ত পরীক্ষা এই কর্মসূচির আওতার বাইরে থাকবে), আগামী ১৮ মার্চের মধ্যে সাত দফা দাবি বাস্তবায়ন না হলে ১৯ মার্চ থেকে ২৭ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস কার্যক্রম বন্ধ থাকবে, গত ৬ মার্চ উপাচার্য শিক্ষকদের সম্পর্কে যে বিরূপ মন্তব্য করেছেন (শিক্ষকরা এক কলম লিখতে পারেনা, শিক্ষকরা ক্লাস-পরীক্ষা নেয় না, শিক্ষকরা টাকা দিয়ে পাবলিকেশন করে ইত্যাদি) এ বিষয়ে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং শিক্ষকদের সম্পর্কে মাননীয় উপাচার্যের এহেন বক্তব্য প্রত্যাহারের অনুরোধের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এ ব্যাপারে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘ এই দাবি সকল শিক্ষকের। আমরা শিক্ষক সমিতি থেকে আগেও এই বিষয়ে লিখিত ও মৌখিকভাবে উপাচার্য মহোদয়কে জানিয়েছি। কিন্তু তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি। তাই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




দুই দিনের ক্লাস বর্জন করলো কুবি শিক্ষক সমিতি

আপডেট সময় : ০৬:৫৪:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪

সাত দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি দুই দিন ক্লাস বর্জন সহ মোট তিনটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সাধারণ সভা শেষে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ড. মাহমুদুল হাছান স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

শিক্ষক সমিতির সাত দফা দাবিগুলো হলো- গত ১৯ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য কার্যালয়ে উপাচার্যের উপস্থিতিতে কিছু উচ্ছৃঙ্খল কর্মকর্তা, বহিরাগত সন্ত্রাসী ও কিছু অছাত্র কর্তৃক শিক্ষকদের উপর ন্যাক্কারজনক হামলায় নেতৃত্ব দানকারী কর্মকর্তা জনাব মোঃ জাকির হোসেনের সাময়িক বহিষ্কারপূর্বক সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তার ও জড়িত সকলের সর্বোচ্চ শান্তি নিশ্চিতকরণ এবং হামলায় মদদদানকারী প্রক্টর জনাব কাজী ওমর সিদ্দিকীর অপসারণ, ঢাকাস্থ গেস্টহাউজ শিক্ষক-কর্মকর্তাদের জন্য অবমুক্ত করা, অধ্যাপক গ্রেড-১ ও অধ্যাপক গ্রেড-২ পদে পদোন্নতির জন্য আবেদনকৃত শিক্ষকদের অবিলম্বে পদোন্নতির ব্যবস্থা করা, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মোতাবেক বিভিন্ন বিভাগে বিভাগীয় প্রধান ও অনুষদসমূহের ডিন নিয়োগ এবং ইতোমধ্যে আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়ে যেসকল বিভাগে বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ দেয়া হয়েছে তাদের প্রত্যাহার করা,
শিক্ষক নিয়োগ, পদোন্নতি ও স্থায়ীকরণের ক্ষেত্রে আইন বহির্ভূত অবৈধ শর্ত আরোপ করে জ্যেষ্ঠতা ক্ষুন্ন করার মাধ্যমে যে সীমাহীন বৈষম্য তৈরি করা হয়েছে দ্রুততম সময়ে সেসবের নিষ্পত্তিকরণ, ৯০তম সিন্ডিকেট সভায় গৃহীত বিতর্কিত শিক্ষাছুটি নীতিমালা রহিত করে পূর্বের নীতিমালা বহাল রাখা
৮৬তম সিন্ডিকেট সভায় অনুমোদিত স্থায়ীকরণ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত বাতিল করা।

উপরে উল্লিখিত সাত দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে শিক্ষক সমিতির নেয়া তিনটি তিনটি সিদ্ধান্ত হলো- বুধ ও বৃহস্পতিবার ক্লাস বর্জন (পূর্ব ঘোষিত চূড়ান্ত পরীক্ষা এই কর্মসূচির আওতার বাইরে থাকবে), আগামী ১৮ মার্চের মধ্যে সাত দফা দাবি বাস্তবায়ন না হলে ১৯ মার্চ থেকে ২৭ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস কার্যক্রম বন্ধ থাকবে, গত ৬ মার্চ উপাচার্য শিক্ষকদের সম্পর্কে যে বিরূপ মন্তব্য করেছেন (শিক্ষকরা এক কলম লিখতে পারেনা, শিক্ষকরা ক্লাস-পরীক্ষা নেয় না, শিক্ষকরা টাকা দিয়ে পাবলিকেশন করে ইত্যাদি) এ বিষয়ে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে নিন্দা প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং শিক্ষকদের সম্পর্কে মাননীয় উপাচার্যের এহেন বক্তব্য প্রত্যাহারের অনুরোধের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এ ব্যাপারে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘ এই দাবি সকল শিক্ষকের। আমরা শিক্ষক সমিতি থেকে আগেও এই বিষয়ে লিখিত ও মৌখিকভাবে উপাচার্য মহোদয়কে জানিয়েছি। কিন্তু তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি। তাই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’