ঢাকা ০৮:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




চট্টগ্রামে কিশোরীদের চাকুরী দেওয়ার নামে অসামাজিক কাজে বাধ্য করছে হিজরা চক্র

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৭:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০২৩ ২৫৮ বার পড়া হয়েছে

চট্টগ্রাম ব্যুরো: স্টেশন থেকে কিশোরীদের এনে যৌনকাজে বাধ্য করতেন তারা লালন-পালনের কথা বলে চট্টগ্রামের রেলস্টেশন ও টাইগারপাস এলাকা থেকে শিশু-কিশোরীদের এনে যৌনকাজে বাধ্য করার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে বন্দর থানা পুলিশ।

দুপুরে বন্দর থানার ইছাক ডিপো টোলপ্লাজা সংলগ্ন বাইপাস এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের জিম্মা থেকে ভুক্তভোগী চারজনকে উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- কুমিল্লার চান্দিনা থানার গল্লাই ভাগুরাপাড়া গ্রামের কোরবান আলীর সন্তান শ্রাবন্তী (৩৪), গাজীপুরের শ্রীপুরের শিমুলতলী গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে মো. আমির হোসেন (৩৫), ভোলা সদর থানার চররমেশ গ্রামের সিধু মাঝির ছেলে মো. জামাল (৫২), একই গ্রামের মৃত বশির আহম্মেদের ছেলে আবদুল জলিল (৫৫), একই থানার আনন্দবাজার ভেলুমিয়া গ্রামের ইয়াছিন ব্যাপারীর মেয়ে মিতু আক্তার কাজল (১৯)। তারা হালিশহর ও বন্দর থানা এলাকায় বসবাস করেন।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় কুমার সিনহা দৈনিক আজকালের দর্পণকে বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের শ্রাবন্তী ১৩-১৪ বছর বয়সী কিশোরীদের চট্টগ্রাম রেলস্টেশন ও টাইগারপাস এলাকা থেকে লালন-পালনের কথা বলে এনে যৌনকাজে বাধ্য করতেন। তারা শিশুদের পতিতাবৃত্তিতে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করতেন। এ ঘটনায় শ্রাবন্তীসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘মো. নাঈম নামে এক যুবক ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালিয়ে গেছেন। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। তাদের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




চট্টগ্রামে কিশোরীদের চাকুরী দেওয়ার নামে অসামাজিক কাজে বাধ্য করছে হিজরা চক্র

আপডেট সময় : ১০:২৭:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০২৩

চট্টগ্রাম ব্যুরো: স্টেশন থেকে কিশোরীদের এনে যৌনকাজে বাধ্য করতেন তারা লালন-পালনের কথা বলে চট্টগ্রামের রেলস্টেশন ও টাইগারপাস এলাকা থেকে শিশু-কিশোরীদের এনে যৌনকাজে বাধ্য করার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে বন্দর থানা পুলিশ।

দুপুরে বন্দর থানার ইছাক ডিপো টোলপ্লাজা সংলগ্ন বাইপাস এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের জিম্মা থেকে ভুক্তভোগী চারজনকে উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- কুমিল্লার চান্দিনা থানার গল্লাই ভাগুরাপাড়া গ্রামের কোরবান আলীর সন্তান শ্রাবন্তী (৩৪), গাজীপুরের শ্রীপুরের শিমুলতলী গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে মো. আমির হোসেন (৩৫), ভোলা সদর থানার চররমেশ গ্রামের সিধু মাঝির ছেলে মো. জামাল (৫২), একই গ্রামের মৃত বশির আহম্মেদের ছেলে আবদুল জলিল (৫৫), একই থানার আনন্দবাজার ভেলুমিয়া গ্রামের ইয়াছিন ব্যাপারীর মেয়ে মিতু আক্তার কাজল (১৯)। তারা হালিশহর ও বন্দর থানা এলাকায় বসবাস করেন।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় কুমার সিনহা দৈনিক আজকালের দর্পণকে বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের শ্রাবন্তী ১৩-১৪ বছর বয়সী কিশোরীদের চট্টগ্রাম রেলস্টেশন ও টাইগারপাস এলাকা থেকে লালন-পালনের কথা বলে এনে যৌনকাজে বাধ্য করতেন। তারা শিশুদের পতিতাবৃত্তিতে কাজে লাগিয়ে টাকা আয় করতেন। এ ঘটনায় শ্রাবন্তীসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘মো. নাঈম নামে এক যুবক ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালিয়ে গেছেন। তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। তাদের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।’