ঢাকা ১১:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




‘ভালো থাকিস সবাই’ স্টোরি দেয়ার পর আত্মহত্যা করেন কুবি শিক্ষার্থী

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১০:৩২:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৬৫৬ বার পড়া হয়েছে

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের স্টোরিতে ‘ভালো থাকিস সবাই। এই দায়ভার কারো নয়, একান্ত আমার’ লেখার কিছুক্ষণ পর ‘আত্মহত্যা’ করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার অনিক।

শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে চারটা থেকে পাঁচটা নাগাদ শাহরিয়ারের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের (কুমেক) কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

জানা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার অনিক। তিনি ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম হলে থাকতেন। তার বাসা কুমিল্লা শহরের টমছম ব্রিজ এলাকায়। অনিকের পরিবারের সদস্যরা রুম থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেন। পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছেন অনিক আত্মহত্যা করেছেন। তবে তিনি কেন আত্মহত্যা করেছেন এই বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এই বিষয়ে ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. শেখ মকছেদুর রহমান জানান, ‘তার নিজ বাসাতেই ঘটনাটি ঘটেছে৷ বিষয়টি আমাদের জন্য খুবই মর্মান্তিক।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




‘ভালো থাকিস সবাই’ স্টোরি দেয়ার পর আত্মহত্যা করেন কুবি শিক্ষার্থী

আপডেট সময় : ১০:৩২:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের স্টোরিতে ‘ভালো থাকিস সবাই। এই দায়ভার কারো নয়, একান্ত আমার’ লেখার কিছুক্ষণ পর ‘আত্মহত্যা’ করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার অনিক।

শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে চারটা থেকে পাঁচটা নাগাদ শাহরিয়ারের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের (কুমেক) কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

জানা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের শিক্ষার্থী শাহরিয়ার অনিক। তিনি ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম হলে থাকতেন। তার বাসা কুমিল্লা শহরের টমছম ব্রিজ এলাকায়। অনিকের পরিবারের সদস্যরা রুম থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেন। পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছেন অনিক আত্মহত্যা করেছেন। তবে তিনি কেন আত্মহত্যা করেছেন এই বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এই বিষয়ে ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. শেখ মকছেদুর রহমান জানান, ‘তার নিজ বাসাতেই ঘটনাটি ঘটেছে৷ বিষয়টি আমাদের জন্য খুবই মর্মান্তিক।’