ঢাকা ০৪:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবিপ্রবিতে ২য় দিনে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন, উপস্থিতি ৯৪.৩৫ শতাংশ Logo রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউরের শত কোটি টাকার সম্পদ অর্জন ও গোপন রাখার অভিযোগ Logo শাবিতে সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা, উপস্থিতি ৯২ শতাংশ Logo ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় শাবিপ্রবিতে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্বে থাকবে শাবি ছাত্রলীগ Logo এনবিআর সদস্য ড. মতিউর রহমানের সম্পদের পাহাড় শীর্ষক সংবাদের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য Logo খুলনায় স্ত্রীসহ খাদ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা Logo বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়েতে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৩ Logo পাসপোর্ট করতে আসা লোকজনকে ভেতরে ঢুকতে দেন না দালালরা Logo এনবিআর কর্তা মতিউর রাহমান ও তার পরিবারের সম্পদের পাহাড়! পর্ব- ১ Logo কুবি শিক্ষক সমিতির মৌন মানববন্ধন




আলহাজ্ব টেক্সটাইলের এমডির মিথ্যাচারের ব্যবস্থা নিবে বিএসইসি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৯:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩ ১৩১ বার পড়া হয়েছে

এইচ আর শফিক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্রখাতের কোম্পানি আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোঃ বখতিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য প্রদানসহ নানাভাবে আইন লংঘনের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এসব অপরাধের জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

অন্যদিকে কোম্পানির পর্ষদ পুনর্গঠন সংক্রান্ত একটি মিথ্য তথ্য যাচাই না করে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে প্রকাশ করায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

বিএসইসি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র অনুসারে, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বিএসইসির কমিশন সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কিছুদিন আগে কোম্পানিটি স্টক এক্সচেঞ্জে পর্ষদ পুনর্গঠন সংক্রান্ত মিথ্যা তথ্য পাঠিয়েছে। আর স্টক এক্সচেঞ্জ তা যাচাই না করেই ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে।

কোম্পানিটি স্টক এক্সচেঞ্জে শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার ধারণ সংক্রান্ত মিথ্যা বিবরণী পাঠিয়েছে।

ভুল তথ্যের মাধ্যমে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদেরকে বিভ্রান্ত করেছে।

বিধি অনুসারে, এ ধরণের বিবরণীতে কোম্পানি সচিব স্বাক্ষর করার কথা থাকলেও আলহাজ্ব টেক্সটাইলের ক্ষেত্রে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ বখতিয়ার রহমান তাতে স্বাক্ষর করেছেন।

অন্যদিকে আইন অনুসারে, কোম্পানির পরিচালক বা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা না হলে পর্ষদ সভায় উপস্থিত থাকা নিষিদ্ধ হলেও আলহাজ্ব টেক্সটাইলের পর্ষদ সভায় এমন ব্যক্তির উপস্থিতিতে নানা মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

১৯৮৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া আলহাজ্ব টেক্সটাইলের অবস্থা বেশ কয়েক বছর ধরেই নাজুক। কোম্পানিটির বিরুদ্ধে খেলাপী ঋণের মামলা করেছিল অগ্রণী ব্যাংক। কয়েক বছরেও এর চূড়ান্ত সমাধান হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে কোম্পানিটির পর্ষদ পুনর্গঠন করে বিএসইসি। কিন্তু উদ্যোক্তা-শেয়ারহোল্ডারদের দ্বন্দ্বের কারণে এ পর্ষদও ঠিকমত কাজ করতে পারেনি। বাধ্য হয়ে বিএসইসি আবারও পর্ষদ পুনর্গঠন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আলহাজ্ব টেক্সটাইলের এমডির মিথ্যাচারের ব্যবস্থা নিবে বিএসইসি

আপডেট সময় : ১০:৩৯:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৮ অগাস্ট ২০২৩

এইচ আর শফিক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্রখাতের কোম্পানি আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোঃ বখতিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য প্রদানসহ নানাভাবে আইন লংঘনের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এসব অপরাধের জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

অন্যদিকে কোম্পানির পর্ষদ পুনর্গঠন সংক্রান্ত একটি মিথ্য তথ্য যাচাই না করে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে প্রকাশ করায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

বিএসইসি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র অনুসারে, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বিএসইসির কমিশন সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কিছুদিন আগে কোম্পানিটি স্টক এক্সচেঞ্জে পর্ষদ পুনর্গঠন সংক্রান্ত মিথ্যা তথ্য পাঠিয়েছে। আর স্টক এক্সচেঞ্জ তা যাচাই না করেই ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে।

কোম্পানিটি স্টক এক্সচেঞ্জে শেয়ারহোল্ডারদের শেয়ার ধারণ সংক্রান্ত মিথ্যা বিবরণী পাঠিয়েছে।

ভুল তথ্যের মাধ্যমে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদেরকে বিভ্রান্ত করেছে।

বিধি অনুসারে, এ ধরণের বিবরণীতে কোম্পানি সচিব স্বাক্ষর করার কথা থাকলেও আলহাজ্ব টেক্সটাইলের ক্ষেত্রে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ বখতিয়ার রহমান তাতে স্বাক্ষর করেছেন।

অন্যদিকে আইন অনুসারে, কোম্পানির পরিচালক বা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা না হলে পর্ষদ সভায় উপস্থিত থাকা নিষিদ্ধ হলেও আলহাজ্ব টেক্সটাইলের পর্ষদ সভায় এমন ব্যক্তির উপস্থিতিতে নানা মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

১৯৮৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া আলহাজ্ব টেক্সটাইলের অবস্থা বেশ কয়েক বছর ধরেই নাজুক। কোম্পানিটির বিরুদ্ধে খেলাপী ঋণের মামলা করেছিল অগ্রণী ব্যাংক। কয়েক বছরেও এর চূড়ান্ত সমাধান হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে কোম্পানিটির পর্ষদ পুনর্গঠন করে বিএসইসি। কিন্তু উদ্যোক্তা-শেয়ারহোল্ডারদের দ্বন্দ্বের কারণে এ পর্ষদও ঠিকমত কাজ করতে পারেনি। বাধ্য হয়ে বিএসইসি আবারও পর্ষদ পুনর্গঠন করে।