ঢাকা ০৮:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




ধরা ছোঁয়ার বাইরে তিনি

ঘুষ বাণিজ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কর্মকর্তার সম্পদের পাহাড়!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:০৭:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ জুন ২০২৩ ৩৬০ বার পড়া হয়েছে

অপরাধ প্রতিবেদক: বরিশাল বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে সদ্য বদলি যাওয়া বিভাগীয় কর্মকর্তা হালিমের ঘুষ কেলেঙ্কারির তথ্য একে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। তিনি একজন মহা ঘুষখোর ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা। বরিশাল বিভাগে দায়িত্বর থাকা কালিন সময়ে, নতুন নতুন ইটভাটার পরিবেশের লাইন্সেন্স দিতে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়েছে। পুরাতন ইটভাটার লাইসেন্স নবায়ন করতেও নিয়েছেন টাকা দু’হাত ভরে। এমনি ইটভাটার নাম পরিবর্তন করতেও নিয়েছেন লক্ষ লক্ষ টাকা। এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য-উপথ্য ও ভুক্তভোগীদের বক্তব্য সহকারে একটি প্রতিবেদন বেশি পৌঁছেছে সকলের সংবাদের হাতে।

তার জন্মস্থান বাপ দাদার ভিটা গৌরনদী উপজেলায় অনুসন্ধানে জানা যায় নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হালিমের চাকুরীর বদৌলতে সম্পদে ফুলে চেপে উঠেছেন তার পরিবার। চাকুরী বিডি অনুসারে নিজ জেলায় পোস্টিং নেওয়ার বিধান না থাকলেও তিনি অর্থ ও প্রতিপত্তির বিনিময় সেই কাজটি সাধ্য করেছেন।  নিজ জেলায় পোস্টিং নিয়েছিলেন একাধিক বার বরিশাল। আর একাধিক বার পোস্টিং নিয়েই তিনি ফুলে ফেঁপে হয়েছেন অর্থশালী।

তার নিজ এলাকার সূত্র জানায়, ইদানীং তিনি অর্থ প্রতিপত্তিতে এতটাই ফুলেফে উঠেছেন যে দান খয়রাতও দিচ্ছেন ফেইসবুকে ফলাও করে প্রচারের মাধ্যমে।

নিজের জেলা ও নিজের বিভাগের পরিবেশ অধিদপ্তরের দায়িত্বে থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়ে গড়ে তুলেছেন অঢেল সম্পদ। তিনি ফুলে ফেঁপে হয়েছেন অর্থশালী। করেছেন ঢাকায় একাধিক ফ্লাট, বাড়িতে গড়েছেন বাড়ী।

নিজের নামে হালিম ফেইসবুক না চালিয়েছেন ছদ্মনামে (রানা) নামে ফেইসবুক চালান তিনি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে তার মুঠোফোনে চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Loading

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ধরা ছোঁয়ার বাইরে তিনি

ঘুষ বাণিজ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কর্মকর্তার সম্পদের পাহাড়!

আপডেট সময় : ০৫:০৭:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ জুন ২০২৩

অপরাধ প্রতিবেদক: বরিশাল বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে সদ্য বদলি যাওয়া বিভাগীয় কর্মকর্তা হালিমের ঘুষ কেলেঙ্কারির তথ্য একে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। তিনি একজন মহা ঘুষখোর ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা। বরিশাল বিভাগে দায়িত্বর থাকা কালিন সময়ে, নতুন নতুন ইটভাটার পরিবেশের লাইন্সেন্স দিতে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়েছে। পুরাতন ইটভাটার লাইসেন্স নবায়ন করতেও নিয়েছেন টাকা দু’হাত ভরে। এমনি ইটভাটার নাম পরিবর্তন করতেও নিয়েছেন লক্ষ লক্ষ টাকা। এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য-উপথ্য ও ভুক্তভোগীদের বক্তব্য সহকারে একটি প্রতিবেদন বেশি পৌঁছেছে সকলের সংবাদের হাতে।

তার জন্মস্থান বাপ দাদার ভিটা গৌরনদী উপজেলায় অনুসন্ধানে জানা যায় নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হালিমের চাকুরীর বদৌলতে সম্পদে ফুলে চেপে উঠেছেন তার পরিবার। চাকুরী বিডি অনুসারে নিজ জেলায় পোস্টিং নেওয়ার বিধান না থাকলেও তিনি অর্থ ও প্রতিপত্তির বিনিময় সেই কাজটি সাধ্য করেছেন।  নিজ জেলায় পোস্টিং নিয়েছিলেন একাধিক বার বরিশাল। আর একাধিক বার পোস্টিং নিয়েই তিনি ফুলে ফেঁপে হয়েছেন অর্থশালী।

তার নিজ এলাকার সূত্র জানায়, ইদানীং তিনি অর্থ প্রতিপত্তিতে এতটাই ফুলেফে উঠেছেন যে দান খয়রাতও দিচ্ছেন ফেইসবুকে ফলাও করে প্রচারের মাধ্যমে।

নিজের জেলা ও নিজের বিভাগের পরিবেশ অধিদপ্তরের দায়িত্বে থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ নিয়ে গড়ে তুলেছেন অঢেল সম্পদ। তিনি ফুলে ফেঁপে হয়েছেন অর্থশালী। করেছেন ঢাকায় একাধিক ফ্লাট, বাড়িতে গড়েছেন বাড়ী।

নিজের নামে হালিম ফেইসবুক না চালিয়েছেন ছদ্মনামে (রানা) নামে ফেইসবুক চালান তিনি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে তার মুঠোফোনে চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Loading