ঢাকা ০৬:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo শাবি ক্যাম্পাসে আন্দোলনকারীদের ছড়ানো গুজবে সয়লাব Logo সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে আন্দোলনকারীরা পুলিশের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে Logo জবিতে আজীবন ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ Logo শাবিতে হল প্রশাসনকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নোটিসে জোর পূর্বক সাইন আদায় Logo এবার সামনে আসছে ছাত্রলীগ কর্তৃক আন্দোলনকারীদের মারধরের আরো ঘটনা Logo আবাসিক হল ছাড়ছে শাবি শিক্ষার্থীরা Logo নিরাপত্তার স্বার্থে শাবি শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড সাথে রাখার আহবান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের Logo জনস্বাস্থ্যের প্রধান সাধুর যত অসাধু কর্ম: দুর্নীতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ! Logo বিআইডব্লিউটিএ বন্দর শাখা যুগ্ম পরিচালক আলমগীরের দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্য  Logo রাজশাহীতে এটিএন বাংলার সাংবাদিক সুজাউদ্দিন ছোটনকে হয়রানিমূলক মামলায় বএিমইউজরে নিন্দা ও প্রতিবাদ




প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমান আমাদের কাছে এক আলোকবর্তিকা : ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

প্রতিনিধি, সিলেট
  • আপডেট সময় : ০৯:১৭:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ জুন ২০২৩ ১৭৫ বার পড়া হয়েছে

আজ বুধবার ৭ জুন ২০২৩ মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন ট্রেজারার প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমানের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া মাহফিল ও শোকসভার আয়োজন করা হয়। বাদ জোহর দোয়া মাহফিল শেষে ইউনিভার্সিটির কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেন, “প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমান আমাদের কাছে এক আলোকবর্তিকা। তিনি একাধারে সুলেখক, মনস্বী অধ্যাপক ও একজন বিবেকবান মানুষ ছিলেন। তিনি ছিলেন কোমল হৃদয়ের এক ব্যক্তিত্ব। গরীব শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের জন্য তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে পনেরো লক্ষ টাকা দান করে গিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণা ও নেতৃত্বের উন্নয়নে তিনি নিরলস কাজ করে করেছেন। ট্রেজারার, রেজিস্ট্রার, ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য নানা ভূমিকায় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠা ও বিকাশে তাঁর অনন্য অবদান রয়েছে। আমরা তাঁর আদর্শকে ধারণ করে এগিয়ে যাব। অদূর ভবিষ্যতে আমাদের মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি জ্ঞানচর্চার অন্যতম কেন্দ্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে।”

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মিহির কান্তি চৌধুরীর সঞ্চালনা ও ব্যবসা ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন এবং আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মো. তাহের বিল্লাল খলিফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোকসভার শুরুতেই মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন কলা হয়। শোকসভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা ও আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর চৌধুরী এম. মোকাম্মেল ওয়াহিদ, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক (ইটিএল) ড. রমা ইসলাম, অর্থনীতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক মো. মাসুদ রানা, আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক গাজী সাইফুল হাসান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক খন্দকার মকসুদ আহমেদ প্রমুখ।

শোকসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক মো. মাহফুজুল হাসান, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রোনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক কাজী অহিদুজ্জামান, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ রায়, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান সহকারী অধ্যাপক নওশাদ আহমেদ চৌধুরী, ইউনিভার্সিটির ইমাম মো. ইসমাইল হোসেন, ভাইস চ্যান্সেলর মহোদয়ের পিএস মো. আল আমিন প্রমূখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমান আমাদের কাছে এক আলোকবর্তিকা : ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক

আপডেট সময় : ০৯:১৭:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ জুন ২০২৩

আজ বুধবার ৭ জুন ২০২৩ মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন ট্রেজারার প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমানের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া মাহফিল ও শোকসভার আয়োজন করা হয়। বাদ জোহর দোয়া মাহফিল শেষে ইউনিভার্সিটির কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেন, “প্রফেসর খন্দকার মাহমুদুর রহমান আমাদের কাছে এক আলোকবর্তিকা। তিনি একাধারে সুলেখক, মনস্বী অধ্যাপক ও একজন বিবেকবান মানুষ ছিলেন। তিনি ছিলেন কোমল হৃদয়ের এক ব্যক্তিত্ব। গরীব শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের জন্য তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে পনেরো লক্ষ টাকা দান করে গিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণা ও নেতৃত্বের উন্নয়নে তিনি নিরলস কাজ করে করেছেন। ট্রেজারার, রেজিস্ট্রার, ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য নানা ভূমিকায় মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠা ও বিকাশে তাঁর অনন্য অবদান রয়েছে। আমরা তাঁর আদর্শকে ধারণ করে এগিয়ে যাব। অদূর ভবিষ্যতে আমাদের মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি জ্ঞানচর্চার অন্যতম কেন্দ্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে।”

ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মিহির কান্তি চৌধুরীর সঞ্চালনা ও ব্যবসা ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন এবং আইকিউএসির পরিচালক প্রফেসর ড. মো. তাহের বিল্লাল খলিফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শোকসভার শুরুতেই মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন কলা হয়। শোকসভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. নজরুল হক চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা ও আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর চৌধুরী এম. মোকাম্মেল ওয়াহিদ, আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক (ইটিএল) ড. রমা ইসলাম, অর্থনীতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক মো. মাসুদ রানা, আইন ও বিচার বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক গাজী সাইফুল হাসান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক খন্দকার মকসুদ আহমেদ প্রমুখ।

শোকসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক মো. মাহফুজুল হাসান, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রোনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক কাজী অহিদুজ্জামান, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ রায়, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ভারপ্রাপ্ত প্রধান সহকারী অধ্যাপক নওশাদ আহমেদ চৌধুরী, ইউনিভার্সিটির ইমাম মো. ইসমাইল হোসেন, ভাইস চ্যান্সেলর মহোদয়ের পিএস মো. আল আমিন প্রমূখ।