ঢাকা ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




কেন্দ্রীয় অনুমোদন ছাড়া বঙ্গবন্ধু পরিষদ খোলা বেআইনি: বঙ্গবন্ধু পরিষদ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, কুমিল্লা
  • আপডেট সময় : ০৮:২২:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মার্চ ২০২৩ ১২৪ বার পড়া হয়েছে

কেন্দ্রীয় অনুমোদন ব্যতিরেকে একই নামে স্বঘোষিত কমিটি গঠনের বিরুদ্ধে নিন্দা, প্রতিবাদ ও সাংগঠনিক বিবৃতি দিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) কেন্দ্রীয় অনুমোদনপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধু পরিষদ।

বুধবার (২২ মার্চ) কেন্দ্রীয় অনুমোদনপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি কাজী ওমর সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ জাহিদ হাসানের সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তা জানা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২১ মার্চ, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদের মাধ্যমে অবগত হই যে, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে ও কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের বিনা অনুমোদনে বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় গঠন করেছে, যা সম্পূর্ণ অসাংগঠনিক এবং কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ-এর সঙ্গে ধৃষ্টতা প্রদর্শনের শামিল। কারণ, কেন্দ্রের অনুমোদন ছাড়া কোথাও ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ গঠন ও পরিচালনার ব্যাপারে কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ-এর পক্ষ থেকে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও, তা উপেক্ষা করে ওই পরিষদ গঠন করা হয়েছে। আমরা বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় কতিপয় শিক্ষকের এমন কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আমরা স্বার্থহীন ভাষায় বলতে চাই, সভাপতি কাজী ওমর সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ জাহিদ হাসানের নেতৃত্বে যে বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে, তা কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ কর্তৃক অনুমোদিত ও বৈধ। এ ছাড়া অনুমোদনহীন কথিত ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ সম্পূর্ণ অবৈধ।

আমরা মনে করি, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কতিপয় প্রতিক্রিয়াশীল জামা বিএনপি’র শিক্ষক কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবৈধভাবে ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ পরিচালনা করে আসছে। তাদের বারবার সতর্ক এমনকি কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের সর্বোচ্চ নেতার পক্ষ থেকে কার্যক্রম বন্ধ করার আহ্বান সত্ত্বেও তা তারা উপেক্ষা করে চলেছে। তারা বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের আশ্রয় নিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশকে বিনষ্ট করে বিশ্ববিদ্যালয় তথা সরকারের ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করার জন্য হীন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

তাছাড়া বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, অনুমোদনহীন বঙ্গবন্ধু পরিষদের বর্তমান সভাপতি ছাত্রজীবনে ছাত্র শিবিরের সাথে সংশ্লিষ্ট ছিল। পাশাপাশি অনতিবিলম্বে এর কার্যক্রম বন্ধের দাবি জানানো হয়। একই সঙ্গে স্বঘোষিত কমিটির বিরুদ্ধে কার্যকর ও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদকে অনুরোধ জানানো নয় এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়।

সার্বিক ব্যাপারে কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আ ব ম ফারুক বলেন, ‘অনুমোদনহীনের আবার কমিটি কিসের। এটির তো অনুমোদনই নেই। বঙ্গবন্ধু পরিষদের মধ্যে এমন বিভক্তি আমরা পছন্দ করি না। সবাই মিলে কাজ করা উচিৎ, সবাই মিলে এগোনো উচিৎ। এটিই আমাদের প্রত্যাশা। যাদের অনুমোদন আছে এবং যারা অনুমোদনহীন আমরা দু’পক্ষকেই বলবো একত্রে কাজ করার জন্য। দুই পক্ষকে একত্র করার জন্য যদি আমাদের কিছু করার থাকে তাহলে আমরা চেষ্টা করবো একত্র করার জন্য।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




কেন্দ্রীয় অনুমোদন ছাড়া বঙ্গবন্ধু পরিষদ খোলা বেআইনি: বঙ্গবন্ধু পরিষদ

আপডেট সময় : ০৮:২২:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মার্চ ২০২৩

কেন্দ্রীয় অনুমোদন ব্যতিরেকে একই নামে স্বঘোষিত কমিটি গঠনের বিরুদ্ধে নিন্দা, প্রতিবাদ ও সাংগঠনিক বিবৃতি দিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) কেন্দ্রীয় অনুমোদনপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধু পরিষদ।

বুধবার (২২ মার্চ) কেন্দ্রীয় অনুমোদনপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি কাজী ওমর সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ জাহিদ হাসানের সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তা জানা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২১ মার্চ, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদের মাধ্যমে অবগত হই যে, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে ও কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের বিনা অনুমোদনে বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় গঠন করেছে, যা সম্পূর্ণ অসাংগঠনিক এবং কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ-এর সঙ্গে ধৃষ্টতা প্রদর্শনের শামিল। কারণ, কেন্দ্রের অনুমোদন ছাড়া কোথাও ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ গঠন ও পরিচালনার ব্যাপারে কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ-এর পক্ষ থেকে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও, তা উপেক্ষা করে ওই পরিষদ গঠন করা হয়েছে। আমরা বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় কতিপয় শিক্ষকের এমন কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আমরা স্বার্থহীন ভাষায় বলতে চাই, সভাপতি কাজী ওমর সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ জাহিদ হাসানের নেতৃত্বে যে বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে, তা কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ কর্তৃক অনুমোদিত ও বৈধ। এ ছাড়া অনুমোদনহীন কথিত ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’ সম্পূর্ণ অবৈধ।

আমরা মনে করি, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দর্শনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কতিপয় প্রতিক্রিয়াশীল জামা বিএনপি’র শিক্ষক কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবৈধভাবে ‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ পরিচালনা করে আসছে। তাদের বারবার সতর্ক এমনকি কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের সর্বোচ্চ নেতার পক্ষ থেকে কার্যক্রম বন্ধ করার আহ্বান সত্ত্বেও তা তারা উপেক্ষা করে চলেছে। তারা বিভিন্ন ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের আশ্রয় নিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশকে বিনষ্ট করে বিশ্ববিদ্যালয় তথা সরকারের ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করার জন্য হীন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

তাছাড়া বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়, অনুমোদনহীন বঙ্গবন্ধু পরিষদের বর্তমান সভাপতি ছাত্রজীবনে ছাত্র শিবিরের সাথে সংশ্লিষ্ট ছিল। পাশাপাশি অনতিবিলম্বে এর কার্যক্রম বন্ধের দাবি জানানো হয়। একই সঙ্গে স্বঘোষিত কমিটির বিরুদ্ধে কার্যকর ও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদকে অনুরোধ জানানো নয় এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানানো হয়।

সার্বিক ব্যাপারে কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আ ব ম ফারুক বলেন, ‘অনুমোদনহীনের আবার কমিটি কিসের। এটির তো অনুমোদনই নেই। বঙ্গবন্ধু পরিষদের মধ্যে এমন বিভক্তি আমরা পছন্দ করি না। সবাই মিলে কাজ করা উচিৎ, সবাই মিলে এগোনো উচিৎ। এটিই আমাদের প্রত্যাশা। যাদের অনুমোদন আছে এবং যারা অনুমোদনহীন আমরা দু’পক্ষকেই বলবো একত্রে কাজ করার জন্য। দুই পক্ষকে একত্র করার জন্য যদি আমাদের কিছু করার থাকে তাহলে আমরা চেষ্টা করবো একত্র করার জন্য।’