ঢাকা ০৯:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করেছে শাবিপ্রবির সিরাজুন্নেসা ছাত্রীহল

প্রতিনিধি, শাবিপ্রবি
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩ ১৩৩৮ বার পড়া হয়েছে

‘আর নয় বৈষম্য সমতায় গড়বো বিশ্ব’ প্রতিপাদ্যে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রীহল।

 

বুধবার (৮ মার্চ) দিবসটি উপলক্ষে রাত আটটায় হল প্রাধ্যক্ষের কক্ষে কেক কেটে দিবসটি উদযাপন করা হয়। কেক কাটা শেষে প্রাধ্যক্ষ জোবেদা কনক খান ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে নারীদের বিভিন্ন বিষয়াদি ও শিক্ষা এবং কর্মক্ষেত্রে নারীদের এগিয়ে যাবার গল্প তুলে ধরেন।

 

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক নারী দিবসের শুরু ১৮৫৭ সালের ৮ মার্চ। এসময় যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে একটি কারখানার নারী শ্রমিকেরা দৈনিক শ্রম ১২ ঘণ্টা থেকে কমিয়ে আট ঘণ্টায় আনা ও ন্যায্য মজুরিসহ কর্মক্ষেত্রে সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে আন্দোলনে নামেন। গ্রেপ্তার হন বহু নারী। পরবর্তী সময়ে আন্দোলন আরও দানা বেঁধে ওঠে। অবশেষে ১৯১০ সালের এই দিনে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সমাজতান্ত্রিক সম্মেলনে জার্মানির নেত্রী ক্লারা জেটকিন ৮ মার্চকে নারী দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। এরপর থেকেই সারা বিশ্বে দিবসটি আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

এরপর ১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ দিনটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য- ‘ডিজিটাল প্রযুক্তি ও উদ্ভাবন জেন্ডার বৈষম্য করবে নিরসন।’

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করেছে শাবিপ্রবির সিরাজুন্নেসা ছাত্রীহল

আপডেট সময় : ১১:৩৮:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মার্চ ২০২৩

‘আর নয় বৈষম্য সমতায় গড়বো বিশ্ব’ প্রতিপাদ্যে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রীহল।

 

বুধবার (৮ মার্চ) দিবসটি উপলক্ষে রাত আটটায় হল প্রাধ্যক্ষের কক্ষে কেক কেটে দিবসটি উদযাপন করা হয়। কেক কাটা শেষে প্রাধ্যক্ষ জোবেদা কনক খান ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে নারীদের বিভিন্ন বিষয়াদি ও শিক্ষা এবং কর্মক্ষেত্রে নারীদের এগিয়ে যাবার গল্প তুলে ধরেন।

 

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিক নারী দিবসের শুরু ১৮৫৭ সালের ৮ মার্চ। এসময় যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে একটি কারখানার নারী শ্রমিকেরা দৈনিক শ্রম ১২ ঘণ্টা থেকে কমিয়ে আট ঘণ্টায় আনা ও ন্যায্য মজুরিসহ কর্মক্ষেত্রে সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে আন্দোলনে নামেন। গ্রেপ্তার হন বহু নারী। পরবর্তী সময়ে আন্দোলন আরও দানা বেঁধে ওঠে। অবশেষে ১৯১০ সালের এই দিনে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সমাজতান্ত্রিক সম্মেলনে জার্মানির নেত্রী ক্লারা জেটকিন ৮ মার্চকে নারী দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। এরপর থেকেই সারা বিশ্বে দিবসটি আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

এরপর ১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ দিনটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য- ‘ডিজিটাল প্রযুক্তি ও উদ্ভাবন জেন্ডার বৈষম্য করবে নিরসন।’