ঢাকা ০২:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




সুন্দরবনের বাঘের থেকেও মংলার দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী টাইগার জলিল ভয়ংকর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩১:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২ ৩৯৩ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক: মংলা সমুদ্র বন্দর এলাকার দুর্ধর্ষ জলদস্যু মাদক ব্যবসায়ী সন্ত্রাসী সিন্ডিকেট টাইগার জলিলকে গ্রেপ্তারের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শনিবার বিকেল চারটার “আমরা মংলা বাসী” নামের ব্যানারে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

উক্ত সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেন তারা। তাদের দাবিতে উল্লেখ করেন, সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার থেকেও মংলা বন্দর এলাকার মানুষের নিকট সন্ত্রাসী টাইগার জলিল-ইকবাল সিন্ডিকেট বেশি ভয়ংকর ও আতঙ্কের এক নাম।

মংলা সমুদ্র বন্দর এলাকার মাদক ব্যবসার সম্রাট, জাহাজ থেকে চোরাইভাবে বিভিন্ন পণ্য অপসারণ করে শত কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া টাইগার জলিল বর্তমানে মংলা এলাকার জনসাধারণের জন্য এক মূর্তিমান আতঙ্কে পরিণত হয়েছে।

প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে সমুদ্র চলাচলকারী পণ্যবাহী জাহাজ থেকে তেলসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি, ছিনতাই, জনসাধারণের জমি দখল, টেন্ডারবাজি, পণ্যবাহী জাহাজ হতে তেল ও মালামাল লুট, ভূমি দখল, মাদক ব্যবসা, সরকারি সম্পত্তি চুরি করা সহ সরকারি জাহাজ কেটে বিক্রির মত দুর্ধর্ষ অপরাধে এক সঙ্ঘবদ্ধ সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেন মংলা বন্দরে। টাইগার জলির সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের তার বেপরোয়া কর্মকাণ্ডে মংলা এলাকার জনসাধারণের মাঝে টাইগার জলিল বাহিনী এক ভয়াবহ আতঙ্কে পরিণত হয়েছে।

টাইগার জলিল-ইকবালের অপরাধ সিন্ডিকেটের আয়ের মুল খাত পণ্যবাহী জাহাজের তেল সহ অন্যান্য মালামাল ছিনতাই, চুরি ও মংলা এলাকায় মাদক ব্যবসা, এই দুইটি বিষয়ে দেখভাল করেন স্থানীয় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল, এছাড়াও এই সিন্ডিকেটের সহযোগী হিসেবে রয়েছে উপজেলার ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবির সহ স্থানীয় প্রভাবশালী বেশ কয়েকজন।

 

মংলা বন্দরের মূর্তিমান আতঙ্ক টাইগার জলিল বাহিনীর বিরুদ্ধে রয়েছে মংলা বাগেরহাট ও খুলনার বিভিন্ন থানায় অভিযোগসহ বেশ কয়েকটি মমামলা ছাড়াও রেপিডাকশন ব্যাটালিয়ন রেবের কাছে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও মংলার কোস্ট গার্ডের কাছে সমুদ্র অঞ্চলে টাইগার জলিল ও ইকবাল সিন্ডিকেট দস্যু হিসেবে পরিচিত।

মানববন্ধনে সাংবাদিকদের তারা আরো জানান এই ভয়ংকর সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন নিশ্চুপ থাকায় বাংলার সাধারণ জনগণ হতাশ।
তাই প্রধানমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ দেশের সকল প্রশাসনের নিকট তাদের দাবি জলিল ও তার সহযোগী বাহিনীকে অতি দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




error: Content is protected !!

সুন্দরবনের বাঘের থেকেও মংলার দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী টাইগার জলিল ভয়ংকর

আপডেট সময় : ০২:৩১:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২২

অনলাইন ডেস্ক: মংলা সমুদ্র বন্দর এলাকার দুর্ধর্ষ জলদস্যু মাদক ব্যবসায়ী সন্ত্রাসী সিন্ডিকেট টাইগার জলিলকে গ্রেপ্তারের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শনিবার বিকেল চারটার “আমরা মংলা বাসী” নামের ব্যানারে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

উক্ত সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেন তারা। তাদের দাবিতে উল্লেখ করেন, সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার থেকেও মংলা বন্দর এলাকার মানুষের নিকট সন্ত্রাসী টাইগার জলিল-ইকবাল সিন্ডিকেট বেশি ভয়ংকর ও আতঙ্কের এক নাম।

মংলা সমুদ্র বন্দর এলাকার মাদক ব্যবসার সম্রাট, জাহাজ থেকে চোরাইভাবে বিভিন্ন পণ্য অপসারণ করে শত কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া টাইগার জলিল বর্তমানে মংলা এলাকার জনসাধারণের জন্য এক মূর্তিমান আতঙ্কে পরিণত হয়েছে।

প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের নাম ভাঙ্গিয়ে সমুদ্র চলাচলকারী পণ্যবাহী জাহাজ থেকে তেলসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি, ছিনতাই, জনসাধারণের জমি দখল, টেন্ডারবাজি, পণ্যবাহী জাহাজ হতে তেল ও মালামাল লুট, ভূমি দখল, মাদক ব্যবসা, সরকারি সম্পত্তি চুরি করা সহ সরকারি জাহাজ কেটে বিক্রির মত দুর্ধর্ষ অপরাধে এক সঙ্ঘবদ্ধ সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেন মংলা বন্দরে। টাইগার জলির সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের তার বেপরোয়া কর্মকাণ্ডে মংলা এলাকার জনসাধারণের মাঝে টাইগার জলিল বাহিনী এক ভয়াবহ আতঙ্কে পরিণত হয়েছে।

টাইগার জলিল-ইকবালের অপরাধ সিন্ডিকেটের আয়ের মুল খাত পণ্যবাহী জাহাজের তেল সহ অন্যান্য মালামাল ছিনতাই, চুরি ও মংলা এলাকায় মাদক ব্যবসা, এই দুইটি বিষয়ে দেখভাল করেন স্থানীয় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল, এছাড়াও এই সিন্ডিকেটের সহযোগী হিসেবে রয়েছে উপজেলার ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবির সহ স্থানীয় প্রভাবশালী বেশ কয়েকজন।

 

মংলা বন্দরের মূর্তিমান আতঙ্ক টাইগার জলিল বাহিনীর বিরুদ্ধে রয়েছে মংলা বাগেরহাট ও খুলনার বিভিন্ন থানায় অভিযোগসহ বেশ কয়েকটি মমামলা ছাড়াও রেপিডাকশন ব্যাটালিয়ন রেবের কাছে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও মংলার কোস্ট গার্ডের কাছে সমুদ্র অঞ্চলে টাইগার জলিল ও ইকবাল সিন্ডিকেট দস্যু হিসেবে পরিচিত।

মানববন্ধনে সাংবাদিকদের তারা আরো জানান এই ভয়ংকর সন্ত্রাসী সিন্ডিকেটের ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন নিশ্চুপ থাকায় বাংলার সাধারণ জনগণ হতাশ।
তাই প্রধানমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ দেশের সকল প্রশাসনের নিকট তাদের দাবি জলিল ও তার সহযোগী বাহিনীকে অতি দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার।