• ১৮ই অক্টোবর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

স্বর্ণেরবার ছিনতাইকারী ৬ পুলিশকে বাঁচাতে এজহার পাল্টে গেল!

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত আগস্ট ২৮, ২০২১, ০৭:২২ পূর্বাহ্ণ
স্বর্ণেরবার ছিনতাইকারী ৬ পুলিশকে বাঁচাতে এজহার পাল্টে গেল!

রায়হান হোসাইন, বিশেষ প্রতিনিধি:-

চট্টগ্রামের স্বর্ণব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাসের কাছ থেকে ২০টি সোনার বার ছিনতাইয়ের ঘটনায় অভিযুক্ত ফেনী গোয়েন্দা পুলিশের ৬ কর্মকর্তাকে অভিযোগ থেকে রেহাই পাইয়ে দেওয়ার পথ তৈরি করা হচ্ছে— এমন অভিযোগ উঠেছে। এমনকি মামলার এজাহার পরিবর্তন করে ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের ‘সুবিধা’ করে দেওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ৮ আগস্ট বিকেল সোয়া ৫টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফতেহপুর রেলওয়ে ওভারব্রিজের সামনে ফেনী গোয়েন্দা পুলিশের ৬ কর্মকর্তা চট্টগ্রামের স্বর্ণব্যবসায়ী গোপাল কান্তি দাসের কাছ থেকে ২০টি সোনার বার ছিনতাই করেন। এই ২০টি স্বর্ণের বারের মোট ওজন ২ কেজি ৩৩০ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় ১ কোটি ২৭ লাখ ৮৪ হাজার ৬৩৬ টাকা।
অভিযুক্ত এই ছয় পুলিশ সদস্য হলেন— ফেনী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি সাইফুল ইসলাম, এসআই মোতাহার হোসেন, নুরুল হক ও মিজানুর রহমান এবং এএসআই অভিজিৎ বড়ুয়া ও মাসুদ রানা। ঘটনার পর তাদের সবাইকে গ্রেপ্তার করার পর চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। ফেনী মডেল থানা পুলিশ ঘটনার পর পরই ছিনতাই হওয়া ২০টি বারের মধ্যে ১৫টি বার উদ্ধার করে ওসি সাইফুল ইসলামের বাসার আলমারি থেকে। ১৭ দিন রিমান্ডে থাকার পরেও কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

গোপাল কান্তি দাস অভিযোগ করেছেন, পুলিশ তার এজাহার পরিবর্তন করে দিয়েছে। তিনি যে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন সেটা এজাহার হিসেবে গ্রহণ করা হয়নি বলেও দাবি করেন তিনি। পুলিশ ঘটনার সময় আরও কয়েকটি কাগজে সই নিয়েছিল— এই দাবি করে গোপাল বলেন, ‘সেখানে পুলিশের নিজের লেখা একটি এজাহার ছিল। থানা সেটাই রেকর্ড করেছে। তাতে অনেক তথ্যের গরমিল রয়েছে। অনেক অভিযোগ বাদ দেওয়া হয়েছে। আমি এখন আশঙ্কা করছি মামলাটি দুর্বল করে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের সুবিধা দিতেই অন্য পুলিশ সদস্যরা এই কাজ করেছে।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৪৪
  • ১১:৪৮
  • ৩:৫৫
  • ৫:৩৬
  • ৬:৫০
  • ৫:৫৬
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!