ঢাকা ০৩:৫৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




গ্রেপ্তার হতে পারেন জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হেফাজতের অসংখ্য নেতাকর্মী!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:২৪:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ এপ্রিল ২০২১ ১৩৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে হেফাজতে ইসলামের আহ্বায়ক কমিটির আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে দুইটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। আশংকা রয়েছে এই মামলায় বাবুনগরীসহ অসংখ্য হেফাজত নেতা গ্রেপ্তার হতে পারেন।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম। গত বৃহস্পতিবার মামলা দুটি দায়ের হলেও জানা গেছে আজ (সোমবার)।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় দায়ের করা মামলা দুটিতে বাবুনগরী ছাড়াও হেফাজতের কয়েকজনের নেতার নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও প্রায় তিন হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।

হাটহাজারী থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ মার্চের সহিংসতার ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে মামলা দুটি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) কনস্টেবল মো. সোলায়মানের দায়ের করা মামলায় হেফাজতের আহ্বায়ক কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজত নেতা নাছির উদ্দিন, মীর ইদ্রিস, আহসান উল্লাহসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। এ মামলায় অজ্ঞাত হিসেবে আসামি করা হয়েছে ২০০ জনকে।

সম্প্রতি বাংলাদেশে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির আগমন নিয়ে বিরোধিতা করেন হেফাজতে ইসলাম। এতে সরকারের সাথে সংঘাতে জরায় হেফাজত নেতাকর্মীরা। সারাদেশে হরতাল ও ভাঙচুর জ্বালাও-পোড়াওয়ের একাধিক মামলা দায়ের করা হলে ইতিমধ্যেই মামুনুল হক সহ হেফাজতের গুরুত্বপূর্ণ অসংখ্য নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার হন।

এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির অনেকেই পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন এতে একপ্রকার বেসামাল হয়ে পড়ে হেফাজত ইসলামের সাংগঠনিক অবকাঠামো।

এর মধ্যেই রোববার রাতে হেফাজতে আমির মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরী এক ভিডিও বার্তায় হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা দেন। তার পরক্ষণই ওই রাতে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




গ্রেপ্তার হতে পারেন জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হেফাজতের অসংখ্য নেতাকর্মী!

আপডেট সময় : ০৭:২৪:০৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ এপ্রিল ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সহিংসতার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে হেফাজতে ইসলামের আহ্বায়ক কমিটির আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে দুইটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। আশংকা রয়েছে এই মামলায় বাবুনগরীসহ অসংখ্য হেফাজত নেতা গ্রেপ্তার হতে পারেন।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম। গত বৃহস্পতিবার মামলা দুটি দায়ের হলেও জানা গেছে আজ (সোমবার)।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় দায়ের করা মামলা দুটিতে বাবুনগরী ছাড়াও হেফাজতের কয়েকজনের নেতার নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও প্রায় তিন হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।

হাটহাজারী থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ মার্চের সহিংসতার ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে মামলা দুটি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) কনস্টেবল মো. সোলায়মানের দায়ের করা মামলায় হেফাজতের আহ্বায়ক কমিটির আমির জুনায়েদ বাবুনগরী, হেফাজত নেতা নাছির উদ্দিন, মীর ইদ্রিস, আহসান উল্লাহসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। এ মামলায় অজ্ঞাত হিসেবে আসামি করা হয়েছে ২০০ জনকে।

সম্প্রতি বাংলাদেশে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির আগমন নিয়ে বিরোধিতা করেন হেফাজতে ইসলাম। এতে সরকারের সাথে সংঘাতে জরায় হেফাজত নেতাকর্মীরা। সারাদেশে হরতাল ও ভাঙচুর জ্বালাও-পোড়াওয়ের একাধিক মামলা দায়ের করা হলে ইতিমধ্যেই মামুনুল হক সহ হেফাজতের গুরুত্বপূর্ণ অসংখ্য নেতা-কর্মী গ্রেপ্তার হন।

এছাড়াও কেন্দ্রীয় কমিটির অনেকেই পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন এতে একপ্রকার বেসামাল হয়ে পড়ে হেফাজত ইসলামের সাংগঠনিক অবকাঠামো।

এর মধ্যেই রোববার রাতে হেফাজতে আমির মাওলানা জুনায়েদ বাবুনগরী এক ভিডিও বার্তায় হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা দেন। তার পরক্ষণই ওই রাতে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।