• ১১ই আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৭শে শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

স্ত্রী-সন্তানকে বাসস্ট্যান্ডে রেখে পালালেন স্বামী!

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত জানুয়ারি ২৯, ২০২১, ২৩:১৯ অপরাহ্ণ
স্ত্রী-সন্তানকে বাসস্ট্যান্ডে রেখে পালালেন স্বামী!

জেলা প্রতিনিধি;

ময়মনসিংহের নান্দাইল বাসস্ট্যান্ডে ঋতু পর্ণা (২২) নামের এক গৃহবধূকে ফেলে পালিয়েছে স্বামী মোশাররফ।

ঋতু পর্ণা জামালপুর সদর উপজেলার লাহিড়ি কান্দা এলাকার সামছুল হকের মেয়ে। নিরব মিয়া (৪) ও রূপা বেগম (৬ মাস) নামের তাদের দুই সন্তান রয়েছে।

শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) সকালে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইল উপজেলা সদরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোখলেছুর রহমান বলেন, ওই মহিলার (ঋতু পর্ণা) পুলিশে কোনো অভিযোগ করেনি। তবে, স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারছি। ঋতু পর্ণা জামালপুর তার বাবার বাড়িতে চলে গেছে।

পুলিশ জানায়, ঋতু পর্ণা ছোট থেকেই ঢাকায় গৃহকর্মী ও গার্মেন্টেসে কাজ করতেন। দশ বছর আগে ঢাকাতেই পরিচয় হয় মোশাররফের সঙ্গে। সেই সূত্রেই মোশাররফের সঙ্গে বিয়ে হয়। কয়েক বছর ঢাকায় থাকার পর বাবার বাড়িতে চলে আসেন ঋতু পর্ণা। স্বামী মোশারফও মাঝে মধ্যে আসতো। এর মধ্যেই তাদের সংসারে নিরব (৪) ও রূপা (৬ মাস) নামে দুই সন্তানের জন্ম নেয়।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সন্তানের অসুস্থতার কথা বলে টাকা চাইলে মোশারফ দিতে অস্বীকার করে। পরে সন্তানসহ নিজে আত্মহত্যার হুমকি দিলে তাকে ফোনে নান্দাইলে আসার জন্য বলে মোশাররফ।

মোশাররফের কথা মতো বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নান্দাইলে এলে তাকে খোঁজ করে পাওয়া যায়নি। এ সময় তার সঙ্গে থাকা একটি জন্ম নিবন্ধনের ঠিকানা ধরে উপজেলার শেরপুর ইউনিয়নের লংগারপার গ্রামে স্বামীর সন্ধান পান। রাত যাপনের পর শ্বশুরবাড়ি যাবে বলে শুক্রবার ভোরে নিয়ে আসেন নান্দাইল বাসস্ট্যান্ডে। সকালে বাসস্ট্যান্ডে ঋতু পর্ণা ও দুই শিশু সন্তান ফেলে চলে যায় মোশাররফ। এরপর বেশ কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করেও স্বামীর খোঁজ পাননি। মোবাইলে যোগাযোগ হলে ঋতু পর্ণাকে তার বাবার বাড়িতে চলে যেতে বলেন মোশাররফ। পরে সকাল ১০টার দিকে বাবার বাড়িতে চলে যান তিনি।

error: Content is protected !!