ঢাকা ১২:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




নারীকে ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:০৪:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ১৩ বার পড়া হয়েছে

সকালের সংবাদ ডেস্কঃ  কুষ্টিয়ার মিরপুরে প্রতিবেশী এক নারীকে ধর্ষণের দায়ে মো. নান্টু নামে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
আজ দুপুর ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত নান্টু আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আসামি নান্টু এবং ওই নারী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া গ্রামের শাফায়েত হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া ছিলেন। পাশাপাশি ঘর হওয়ায় নান্টু প্রায়ই ওই নারীকে কুপ্রস্তাব দিতেন। এতে রাজি না হওয়ায় ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ রাতে নান্টু ওই নারীকে ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করেন। এ সময় তাকে শারীরিকভাবে আঘাত করেন নান্টু। তার চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে নান্টু পালিয়ে যান। পরবর্তীতে ওই নারীকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঘটনার পাঁচ মাস পর ওই নারীর মৃত্যু হয়। এদিকে ঘটনার পরের দিন বাড়ির মালিক শাফায়েত হোসেন বাদী হয়ে মিরপুর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, বিজ্ঞ আদালত সাক্ষ্যগ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামির বিরুদ্ধে ধর্ষণে জড়িত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




নারীকে ধর্ষণের দায়ে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

আপডেট সময় : ০৮:০৪:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

সকালের সংবাদ ডেস্কঃ  কুষ্টিয়ার মিরপুরে প্রতিবেশী এক নারীকে ধর্ষণের দায়ে মো. নান্টু নামে এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
আজ দুপুর ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত নান্টু আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আসামি নান্টু এবং ওই নারী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া গ্রামের শাফায়েত হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া ছিলেন। পাশাপাশি ঘর হওয়ায় নান্টু প্রায়ই ওই নারীকে কুপ্রস্তাব দিতেন। এতে রাজি না হওয়ায় ২০১৫ সালের ৩০ মার্চ রাতে নান্টু ওই নারীকে ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করেন। এ সময় তাকে শারীরিকভাবে আঘাত করেন নান্টু। তার চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে নান্টু পালিয়ে যান। পরবর্তীতে ওই নারীকে উদ্ধার করে আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঘটনার পাঁচ মাস পর ওই নারীর মৃত্যু হয়। এদিকে ঘটনার পরের দিন বাড়ির মালিক শাফায়েত হোসেন বাদী হয়ে মিরপুর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, বিজ্ঞ আদালত সাক্ষ্যগ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামির বিরুদ্ধে ধর্ষণে জড়িত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।