• ১৪ই আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাত্রীকে বশে আনতে গভর্নিং বডির চেয়ার‌ম্যানের লালসার ফাঁদ!

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত ডিসেম্বর ২০, ২০২০, ২৩:৫০ অপরাহ্ণ
ছাত্রীকে বশে আনতে গভর্নিং বডির চেয়ার‌ম্যানের লালসার ফাঁদ!

নিজস্ব প্রতিবেদক:

লোকটার নাম এ কে এম জসিম উদ্দিন, বয়স ৭০ প্রায়। মহাখালীর আই পি এইচ স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ার‌ম্যান। দুর্নীতিবাজ, মতলববাজ, নৈতিক অবক্ষয়ে পরিপূর্ণ এই মানুষটির নোংরামির সীমাও নেই। এবার ভোরের পাতার হাতে জসিমের সঙ্গে আই পি এইচ স্কুল এন্ড কলেজের একজন অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়েকে বিছানায় নিতে কত ধরণের ফাঁদ তৈরি করেছেন, সে সংক্রান্ত একটি অডিও এসেছে। দুর্নীতিবাজ ও নারীলোভী এই জসিমকে নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ থাকছে প্রথম পর্ব।

জেএসসি পরীক্ষার্থী মেয়েটার সাথে ৪ মিনিট ১৮ সেকেন্ডের অডিওটি সংবাদমাধ্যমের নিকট সংরক্ষিত রয়েছে। তাদের কথপোকথন একতাই নোংরা ও অশ্লীল ভাষায় পরিপূর্ণ থাকায় হুবুবু প্রকাশ করা যাচ্ছে না। মেয়েটির তাকে স্যার বলে সম্ভোধন করার পর নোংরা মানসিকতা নিয়ে বারবার বলেন, এই শীতে তুমি আমার পাশে থাকো, আমি তোমার পাশে থাকবো। মেয়েটি এক সময় বলেন, তার মাকে সাথে নিয়ে আসবো। এক পর্যায়ে মেয়েটি বলেন, আপনি আমার পাশে ছিলেন, আমাকে এভাবে না আটকিয়ে পরীক্ষাটা দিতে দেন। তুমি কাল ফোন দিয়ে অফিসে আসো। মেয়েটি বারবার তাকে একা না মাকে সাথে নিয়ে আসবো, সে কথার প্রতিউত্তরে জসিম বারবার বলেন, সন্ধ্যার পর অথবা বিকালে আসো। তারপর ফোন দিয়ে সময় ও জায়গা বলে দিবেন বলে জানান জসিম। মেয়েটা বারবার মাকে সাথে নিয়ে আসতে চাইলে, জসিম ইনিয়ে বিনিয়ে মেয়েটাকে একা আসার প্রস্তাব দেয়। এমনকি জসিম মেয়েটির সাথে মাতাল অবস্থায় কথা বলছিলেন বলেও মনে করেন অনেকে।

এমন আরো অভিযোগ রয়েছে জসিমের বিরুদ্ধে। অর্থ কেলেংকারি নিয়ে তার বিরুদ্ধে দুদকেও অভিযোগ করা হয়েছে। মহাখালী আই পি এইচ স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিংবডির চেয়ার‌ম্যান হিসাবে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই।

এসব অভিযোগের বিষয়ে এ কে এম জসিম উদ্দিনকে ভোরের পাতা অফিস থেকে ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

আগামী পর্বে: আই পি এইচ স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিংবডির চেয়ারম্যান গিলে খাচ্ছেন প্রতিষ্ঠানটি।

error: Content is protected !!