• ১৬ই আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১লা ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য  নির্মাণে বিএনপি জামাতের বিভ্রান্তি ছড়ানোর প্রতিবাদে স্বেচ্ছাসেবক লীগের মানববন্ধন

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত নভেম্বর ২৯, ২০২০, ১৮:৪৮ অপরাহ্ণ
বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য  নির্মাণে বিএনপি জামাতের বিভ্রান্তি ছড়ানোর প্রতিবাদে স্বেচ্ছাসেবক লীগের মানববন্ধন

সকালের সংবাদঃ

আজ ২৭ নভেম্বর রোজ রবিবার বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ ও সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু’র নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর উত্তর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সার্বিক সহযোগিতায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় সকাল ১১ টা – ১২ টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য নির্মানের বিরোধিতার নামে বিএনপি জামাতের মদদপুষ্ট উগ্র মৌলবাদ, ধর্মান্ধ গোষ্ঠী কর্তৃক জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর প্রতিবাদে এক বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন বঙ্গবন্ধু’র ভাস্কর্য বাংলার ঐতিহ্য, ভাস্কর্য বাঁচিয়ে রাখে ইতিহাস। বিএনপি জামাতের মদদপুষ্ট উগ্র সামপ্রদায়িক মৌলবাদী গোষ্ঠী ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে জাতির পিতার ভাস্কর্য নির্মানের বিরোধিতার নামে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে আসছে! উগ্র সামপ্রদায়িক মৌলবাদ অপশক্তি কে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানে প্রতিরোধ করা হবে বলে দৃঢ় সংকল্প ব্যক্ত করেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রগতিতে বাঁধা সৃষ্টি করতে বিএনপি জামাত ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে! সারা বাংলাদেশে আজ স্বেচ্ছাসেবক লীগ যেকোনো অপশক্তিকে রুখে দিতে সদা প্রস্তুত। বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোন সাম্প্রদায়িক অপশক্তির স্থান হবে না হতে পারে না। স্বাধীন বাংলাদেশে মৌলবাদের মূল উৎপাটন করা হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু বলেন জাতির পিতার ভাস্কর্য সভ্যতার ধারা বিবরণী। ভাস্কর্য আর মূর্তি এক জিনিস নয়! বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশেও ভাস্কর্য তাদের ইতিহাস ঐতিহ্যের গুরুত্ব বহন করে আসছে। স্বাধীনতা, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক ও অভিন্ন। গনতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা,সমাজতন্ত্র ও জাতীয়তাবাদ সংবিধানের মূলমন্ত্র। ৭১’র পরাজিত অপশক্তি, ৭৫ ও ২১ শে আগষ্টের খুনীচক্র বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিএনপি জামাতের মদদপুষ্ট ধর্ম ব্যবসায়ী ফতোয়াবাজদের রুখে দিতে সারা বাংলাদেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ফুঁসে উঠেছে! মৌলবাদ, ধর্মের নামে অপব্যাখাকারী ফতোয়াবাজ কথিত মাওলানা মামুনুল হককে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানে প্রতিহত করা হবে বলে ঘোষণা দেন। তিনি আরও বলেন যতকাল রবে পদ্মা মেঘনা গৌরী যমুনা বহমান, ততকাল রবে কীর্তি তোমার শেখ মুজিবুর রহমান।

আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, সহ সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাক, মজিবুর রহমান স্বপন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোবাশ্বের চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি কামরুল হাসান রিপন, সাধারণ সম্পাদক তারিক সাঈদ, ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান নাঈম, উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি কাজী শহিদুল্লাহ লিটন, শামীম শাহরিয়ার,দেবাশীষ বিশ্বাস, আবদুল আলিম বেপারী, সালেহ মোহাম্মদ টুটুল, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন, কৃষিবিদ আব্দুস সালাম, উপদেষ্টা আবু তাহের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একেএম আজিম, খায়রুল হাসান জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক নাফিউল করিম নাফা, আব্দুল্লাহ আল সায়েম, কৃষিবিদ আ ফ ম মাহবুবুল হাসান মাহবুব, ফরিদুর রহমান খান ইরান, শাহ জালাল মুকুল, মেহেদী হাসান মোল্লা, আবিদ আল হাসান, গন যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুল হক খান, প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বিটু, দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক আজিজ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক কেএম মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল, সিনিয়র সদস্য গোলাম রাব্বানী সহ কেন্দ্রীয় ও মহানগর উত্তর দক্ষিণ, থানা ওয়ার্ডের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

error: Content is protected !!