ঢাকা ০৫:৫৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




ভয় দেখিয়ে ৬ ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০০:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০ ১১৭ বার পড়া হয়েছে

লক্ষ্মীপুরে একাধিক শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে একটি বেসরকারি মাদ্রাসার পরিচালক ও মৌলভী মোবারক হোসেন (২৮) কে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) বিকেলে, সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কালিদাসেরবাগ এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে, স্থানীয় মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামি একাডেমি ভবনে মৌলভী মোবারক হোসেনকে অবরুদ্ধ করে রাখে স্থানীয়রা। এসময় খবর পেয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে ৬ জন ভিকটিমদের উদ্ধারসহ অভিযুক্ত মোবারক হোসেনকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ভিকটিম এক ছাত্রের মা বাদি হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত মোবারক হোসেন সদর উপজেলার মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামী একাডেমীর পরিচালক এবং রায়পুর উপজেলার চর কাচিয়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক মোবারক হোসেন অন্তত ৬ জন শিশু ছাত্রকে একাধিকবার বলাৎকার করেছে। এ বিষয়টি গোপন রাখতে তিনি ছাত্রদের ভয়ভীতি দেখিয়ে শপথ করান এবং তা মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। সম্প্রতি এক শিশুর পায়ুপথ দিয়ে রক্ত বের হওয়াকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ২০১৮ সালে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কালিদাসেরবাগ এলাকায় মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামি একাডেমি নামে একটি প্রাইভেট মাদ্রাসা চালু করেন মোবারক হোসেন। তিনি স্থানীয় মসজিদে ইমামতি করার পাশাপাশি এ মাদ্রাসাটি চালু করেন। এখানে ৩০ জন ছাত্র আবাসিকে থেকে পড়ালেখা করে আসছিলো।

বলাৎকারের ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন মাদ্রাসাটি বন্ধ ঘোষণা করে এবং ছাত্রদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।

লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মিমতানুর রহমান বলেন, একাধিক শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মোবারক হোসেন নামে একটি বেসরকারি মাদ্রাসার পরিচালক ও মৌলভীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




ভয় দেখিয়ে ৬ ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

আপডেট সময় : ০৯:০০:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ নভেম্বর ২০২০

লক্ষ্মীপুরে একাধিক শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে একটি বেসরকারি মাদ্রাসার পরিচালক ও মৌলভী মোবারক হোসেন (২৮) কে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) বিকেলে, সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কালিদাসেরবাগ এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। এর আগে, স্থানীয় মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামি একাডেমি ভবনে মৌলভী মোবারক হোসেনকে অবরুদ্ধ করে রাখে স্থানীয়রা। এসময় খবর পেয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে ৬ জন ভিকটিমদের উদ্ধারসহ অভিযুক্ত মোবারক হোসেনকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ভিকটিম এক ছাত্রের মা বাদি হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত মোবারক হোসেন সদর উপজেলার মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামী একাডেমীর পরিচালক এবং রায়পুর উপজেলার চর কাচিয়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক মোবারক হোসেন অন্তত ৬ জন শিশু ছাত্রকে একাধিকবার বলাৎকার করেছে। এ বিষয়টি গোপন রাখতে তিনি ছাত্রদের ভয়ভীতি দেখিয়ে শপথ করান এবং তা মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। সম্প্রতি এক শিশুর পায়ুপথ দিয়ে রক্ত বের হওয়াকে কেন্দ্র করে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ২০১৮ সালে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার হাজিরপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কালিদাসেরবাগ এলাকায় মুসলিমাবাদ তা’লীমুল কোরআন ইসলামি একাডেমি নামে একটি প্রাইভেট মাদ্রাসা চালু করেন মোবারক হোসেন। তিনি স্থানীয় মসজিদে ইমামতি করার পাশাপাশি এ মাদ্রাসাটি চালু করেন। এখানে ৩০ জন ছাত্র আবাসিকে থেকে পড়ালেখা করে আসছিলো।

বলাৎকারের ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন মাদ্রাসাটি বন্ধ ঘোষণা করে এবং ছাত্রদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।

লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মিমতানুর রহমান বলেন, একাধিক শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মোবারক হোসেন নামে একটি বেসরকারি মাদ্রাসার পরিচালক ও মৌলভীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।