• ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কেনিয়ায় অপহরনকৃত সিলভিয়া রোমানো ফিরেছে স্বদেশে

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত মে ১১, ২০২০, ১৭:১৯ অপরাহ্ণ
কেনিয়ায় অপহরনকৃত সিলভিয়া রোমানো ফিরেছে স্বদেশে

তুহিন মাহামুদ ইউরোপ ব্যুরোঃ

১০ মে রবিবার বিশ্ব মা দিবসে ইতালিতে পদার্পণ করলেন সিলভিয়া রোমানো।তিনি পেশায় একজন সেচ্ছাসেবী, দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর আগে সে সেবা প্রদানের কাজে কেনিয়ায় গমন করেন এবং সেখান থেকে অপহৃত হন। তার অপহৃত হওয়ার খবরটি যখন কর্মরত সংস্থা ও পরিবারের পক্ষ থেকে ইতালির সরকার ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনির কাছে অবহিত করা হয়,ইতালির প্রশাসন ও গোয়েন্দা সংস্থার একটি টিম প্রায় দেড় বছর নিরলস পরিশ্রম করেন উদ্ধার কাজে।

কেনিয়ায় অপহরণের ১৮ মাস পরে ইতালিতে ফিরেছেন ইতালির স্বেচ্ছাসেবক সিলভিয়া রোমানো। কেনিয়ায় অপহরণের পর সোমালিয়ার সশস্ত্র গোষ্ঠী আল-শাবাবের আস্তানায় দীর্ঘ ১৮ মাস বন্দিজীবনে যা যা ঘটেছে সবই জানিয়েছেন তিনি।

সোমালিয়ায় বন্দি থাকাবস্থায় স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন বলেও রোমে জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন সিলভিয়া রোমানো। ইতালিয়ান কম্যান্ডো টিম তুর্কি সিক্রেট সার্ভিসের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে রবিবার রোমে নিয়ে আসা হয়। হিজাব পরিহিতা সিলভিয়া সাবলীলভাবে নেমে আসেন ইতালিয়ান এজেন্সি ফর ইনফরমেশন এন্ড ফরেইন সিকিউরিটি’র বিশেষ জেট বিমান থেকে।

বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী প্রফেসর জোসেপ্পে কন্তের সঙ্গে একান্তে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন সিলভিয়া রোমানো। পররাষ্ট্রমন্ত্রী লুইজি দি মাইওসহ এসময় ভিআইপি লাউন্জে আরও উপস্থিত ছিলেন সিলভিয়ার মা-বাবা ও বোন। বিমানবন্দর থেকে সিলভিয়াকে সরাসরি নিয়ে যাওয়া হয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ প্যারামিলিটারি পুলিশ ফোর্স ক্যারাবিনিয়েরির হেফাজতে।

সন্ত্রাসবাদ বিষয়ক তদন্ত অফিসে সিলভিয়াকে প্রায় চার ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেন রোম প্রসিকিউটর অফিসের ম্যাজিস্ট্রেটরা। হাস্যোজ্জ্বল সিলভিয়া ম্যাজিস্ট্রেটদের বলেন, ‘আমি ভালো আছি। কেনিয়ায় অপহরণকারীরা আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেনি’।

ধর্মান্তরিত হবার সত্যতা নিশ্চিত করে ম্যাজিস্ট্রেটদের সিলভিয়া রোমানো বলেন, ‘আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি এবং এটা ছিলো একান্তই আমার নিজস্ব চয়েস। সোমালিয়ায় বন্দী জীবনে সবাই আমার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেছে এবং বিয়ে করার জন্যও চাপ প্রয়োগ করেনি’।

প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলাদা আলাদা ভাবে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেন। তারা নিজ নিজ বক্তব্যে সিলভিয়াকে উদ্ধার কজে সংযুক্ত থাকা আইন শৃঙ্খলা বাহীনি সহ সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এই সুদীর্ঘ প্রক্রিয়াটাকে তারা তাদের দায়িত্বের অংশ হিসাবে অবিহিত করেন।
তাঁর আগমনে মিলান শহরে মানুষের মধ্যে আনন্দের বার্তা ছড়িয়ে পড়ছে।লকডাউন শিথিলের সাথে সাথে এই আনন্দের ঢেউ আশার স্রোতে ভাসিয়েছে ইতালিয়ান বাসীকে।
উল্লেখ্য সিলভিয়া রোমানো ২০ নভেম্বর ২০১৮ সালে কেনিয়া থেকে অপহৃত হন।তথ্য সূত্র: টিজিকম২৪।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩৬
  • ১১:৫৩
  • ৪:১১
  • ৫:৫৬
  • ৭:০৯
  • ৫:৪৭
error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!!