ঢাকা ০৩:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মঙ্গল শোভাযাত্রা – তাসফিয়া ফারহানা ঐশী Logo সাস্টিয়ান ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর ইফতার মাহফিল সম্পন্ন Logo কুবির চট্টগ্রাম স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের ইফতার ও পূর্নমিলনী Logo অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদের মায়ের মৃত্যুতে শাবির মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মুক্ত চিন্তা চর্চায় ঐক্যবদ্ধ শিক্ষকবৃন্দ পরিষদের শোক প্রকাশ Logo শাবির অধ্যাপক জহীর উদ্দিনের মায়ের মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক প্রকাশ Logo বিশ কোটিতে গণপূর্তের প্রধান হওয়ার মিশনে ‘ছাত্রদল ক্যাডার প্রকৌশলী’! Logo দূর্নীতির রাক্ষস ফায়ার সার্ভিসের এডি আনোয়ার! Logo ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হওয়া শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অবকাঠামোর সংস্কার শুরু Logo বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্র রাজনীতির দাবিতে শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের মানববন্ধন Logo কুবি উপাচার্যের বক্তব্যের প্রমাণ দিতে শিক্ষক সমিতির সাত দিনের আল্টিমেটাম




আমিরের বোলিং তোপে ফাইনালে খুলনা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫২:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২০ ১২৪ বার পড়া হয়েছে

স্পোর্টস ডেস্ক |

পয়েন্ট টেবিলে এক নম্বরে থেকে লিগ পর্ব শেষ করা খুলনা টাইগার্স দাপট দেখিয়ে জায়গা করে নিয়েছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ফাইনালে। গত ছয় আসরে একবারও ফাইনালের স্বাদ না পাওয়া খুলনা মুশফিকের নেতৃত্বে অবশেষে ফাইনাল খেলার স্বাদ পেতে যাচ্ছে।
একই অবস্থা মুশফিকুর রহিমেরও। খুলনার ভেলায় চড়ে অবশেষে বিপিএলের ফাইনালে খেলার স্বাদ পেতে যাচ্ছেন তিনি।
বিবিপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ারের ম্যাচে খুলনার প্রতিপক্ষ ছিল রাজশাহী রয়ালস। দিনের প্রথম ম্যাচে (এলিমিনেটর) ঢাকা প্লাটুনকে বিদায় করে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জায়গা করে নিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। খুলনার কাছে হেরে চট্টগ্রামের সঙ্গী হলো রাজশাহী। এই ম্যাচে যারা জয় পাবে তারা হবে ফাইনালে খুলনার প্রতিপক্ষ।
সন্ধ্যায় প্রথম কোয়ালিফায়ারে রাজশাহী রয়ালস টস জিতে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় খুলনাকে। ব্যাট করতে নেমে আজও শান্তর ব্যাটে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দেয় খুলনা।
কিন্তু বাকিদের ব্যর্থতায় ২০ ওভার শেষে খুলনার স্কোর-বোর্ডে মোট রান জমা হয় ৩ উইকেটে ১৫৮ । গত ম্যাচে ১১৫ রানে অপরাজিত থাকা শান্ত এই ম্যাচেও অপরাজিত থেকে যান ৫৭ বলে ৭৮ রানে।
খুলনার দেয়া ১৫৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রাজশাহীর দুই ওপেনার কাটা পড়েন মোহাম্মদ আমীরের বলে। লিটন দাস বোল্ড হন ২ রানে। আফিফ হোসেন ফেরেন ১১ রান করে।
চাপে পড়া রাজশাহীকে টেনে তোলার চেষ্টায় শোয়েব মালিক খেলেন ৫০ বলে ৮০ রানের ইনিংস। তাতেও লাইনচ্যুত হতে হয় রাজশাহীকে। আন্দ্রে রাসেল-রাবি বোপারারা দাঁড়াতেই পারেননি আমীরের গতির সামনে।
শেষ পর্যন্ত বিপিএলে রেকর্ডই করে ফেলেন আমীর। স্বদেশী পেসার মোহাম্মদ সামীর ৬ রানে ৫ উইকেট নেয়ার রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যান ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে।
নির্ধারিত ওভার খেললেও দশ উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান তুলতে পারে রাজশাহী।
আমীর নেন ৬ উইকেট। ২ উইকেট নেন মেহেদী মিরাজ ও ১টি করে উইকেট নেন রাবি ফ্রাইলিঙ্ক এবং শহীদুল ইসলাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




আমিরের বোলিং তোপে ফাইনালে খুলনা

আপডেট সময় : ১১:৫২:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২০

স্পোর্টস ডেস্ক |

পয়েন্ট টেবিলে এক নম্বরে থেকে লিগ পর্ব শেষ করা খুলনা টাইগার্স দাপট দেখিয়ে জায়গা করে নিয়েছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের ফাইনালে। গত ছয় আসরে একবারও ফাইনালের স্বাদ না পাওয়া খুলনা মুশফিকের নেতৃত্বে অবশেষে ফাইনাল খেলার স্বাদ পেতে যাচ্ছে।
একই অবস্থা মুশফিকুর রহিমেরও। খুলনার ভেলায় চড়ে অবশেষে বিপিএলের ফাইনালে খেলার স্বাদ পেতে যাচ্ছেন তিনি।
বিবিপিএলের প্রথম কোয়ালিফায়ারের ম্যাচে খুলনার প্রতিপক্ষ ছিল রাজশাহী রয়ালস। দিনের প্রথম ম্যাচে (এলিমিনেটর) ঢাকা প্লাটুনকে বিদায় করে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জায়গা করে নিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। খুলনার কাছে হেরে চট্টগ্রামের সঙ্গী হলো রাজশাহী। এই ম্যাচে যারা জয় পাবে তারা হবে ফাইনালে খুলনার প্রতিপক্ষ।
সন্ধ্যায় প্রথম কোয়ালিফায়ারে রাজশাহী রয়ালস টস জিতে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় খুলনাকে। ব্যাট করতে নেমে আজও শান্তর ব্যাটে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দেয় খুলনা।
কিন্তু বাকিদের ব্যর্থতায় ২০ ওভার শেষে খুলনার স্কোর-বোর্ডে মোট রান জমা হয় ৩ উইকেটে ১৫৮ । গত ম্যাচে ১১৫ রানে অপরাজিত থাকা শান্ত এই ম্যাচেও অপরাজিত থেকে যান ৫৭ বলে ৭৮ রানে।
খুলনার দেয়া ১৫৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রাজশাহীর দুই ওপেনার কাটা পড়েন মোহাম্মদ আমীরের বলে। লিটন দাস বোল্ড হন ২ রানে। আফিফ হোসেন ফেরেন ১১ রান করে।
চাপে পড়া রাজশাহীকে টেনে তোলার চেষ্টায় শোয়েব মালিক খেলেন ৫০ বলে ৮০ রানের ইনিংস। তাতেও লাইনচ্যুত হতে হয় রাজশাহীকে। আন্দ্রে রাসেল-রাবি বোপারারা দাঁড়াতেই পারেননি আমীরের গতির সামনে।
শেষ পর্যন্ত বিপিএলে রেকর্ডই করে ফেলেন আমীর। স্বদেশী পেসার মোহাম্মদ সামীর ৬ রানে ৫ উইকেট নেয়ার রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যান ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৬ উইকেট তুলে নিয়ে।
নির্ধারিত ওভার খেললেও দশ উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান তুলতে পারে রাজশাহী।
আমীর নেন ৬ উইকেট। ২ উইকেট নেন মেহেদী মিরাজ ও ১টি করে উইকেট নেন রাবি ফ্রাইলিঙ্ক এবং শহীদুল ইসলাম।