• ১৬ই মে ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২রা জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জেডিসি পরীক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত নভেম্বর ৩, ২০১৯, ০৯:০০ পূর্বাহ্ণ
জেডিসি পরীক্ষার্থীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি; 

গফরগাঁওয়ে এক জেডিসি পরীক্ষার্থীকে অপহরণের পর আটকে রেখে পালাক্রমে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বিপ্লব মেকার, ওয়াশির খাঁ ও শারফুল শেখ এ মাদ্রাসাছাত্রীকে ২৬ দিন পর মাদ্রাসার পাশে রাস্তায় অচেতন অবস্থায় ফেলে যায়। শুক্রবার ভোরে উপজেলার দাইরগাঁও মাদ্রাসার সামনে রাস্তার অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা ওই শিক্ষার্থীকে ফজরের নামাজে আসা মুসল্লিরা উদ্ধার করে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে ওই মাদ্রাসাছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। ভুক্তভোগীর পরিবার ও পুলিশ বলেছে, গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার কলুরগাঁও গ্রামের এক দিনমজুরের কন্যা ও দাইরগাঁও দাখিল মাদ্রাসার জেডিসি পরীক্ষার্থীকে মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দিতো দাইরগাঁও গ্রামের বিপ্লব মেকার। বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানালে ওই ছাত্রীর বাবা বিপ্লব মেকারকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করে। এতে বিপ্লব ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীকে অপহরণের হুমকি দেয়।

গত ৬ই অক্টোবর সন্ধ্যায় একটি সিএনজি করে বিপ্লব, ওয়াশির ও শারফুল ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে তাকে একা পেয়ে অপহরণ করে।

এ ঘটনার পরপরই অপহৃত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পাগলা থানা পুলিশকে মৌখিকভাবে জানানোর পাশাপাশি থানায় জিডি করে। কিন্তু দীর্ঘদিনেও ওই ছাত্রীকে আর উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

ওই মাদ্রাসাছাত্রীর বাবা বলেন, ‘আমি অসহায় মানুষ, টাকা পয়সা কিছুই নাই। আমার মেয়ের ধর্ষণের বিচার চাই। এদের নামে আগেও নারী নির্যাতনের মামলা আছে। এরা প্রভাবশালী, এদের কেউ কিছু করতে পারে না। পাগলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি এবং জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৫
  • ১১:৫৮
  • ৪:৩২
  • ৬:৩৭
  • ৮:০০
  • ৫:১৬