ঢাকা ১১:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo ১৭ মার্চ ও ২৬ মার্চের আহ্বায়কসহ তিনজনকে প্রত্যাহারের আহ্বান কুবি শিক্ষক সমিতির Logo সিলেটে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবির সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের Logo ড. ইউনূসের মামলা পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসংঘ Logo কাভার্ডভ্যান ও অটোরিকশার সংঘর্ষে ছাত্র নিহত, আহত ৩ Logo রাজশাহীতে যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ৫ Logo এবার ঢাবি অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ  Logo সন্দ্বীপ থানার ওসির পিপিএম পদক লাভ Logo মালয়েশিয়ায় ১৩৪ বাংলাদেশি গ্রেফতার Logo শাবির ছাত্রীহলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্থাপন, কমবে চুরি ও বহিরাগত প্রবেশ, বাড়বে নিরাপত্তা Logo গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা ১২ দলীয় জোটের




খুলনা-৬ আসনে প্রচারণায় এগিয়ে আ.লীগ, কৌশলী প্রচারণায় বিএনপি -জামায়াত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৯:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ১০৪ বার পড়া হয়েছে

 

ওবায়দুল কবির,কয়রা (খুলনা) থেকেঃ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে খুলনা ০৬ (কয়রা -পাইকগাছা ) আসনে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। হাওয়ায় দুলছেন নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থী এবং সমর্থকরা।

তবে নির্বাচনী মাঠে প্রার্থীদের মধ্যে প্রচার প্রচারণায় ও গণসংযোগে এগিয়ে আওয়ামীলীগ। অন্যদিকে কৌশলী প্রচারণায় রয়েছেন বিএনপি -জামায়াত নেতারা। কয়রা -পাইকগাছার ১৭টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত এ আসনে এবার ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৯২ জন।এ আসনে আ.লীগ এর প্রার্থী নতুন মুখ জেলা আ.লীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু।

 

 

অপর দিকে বিএনপি দলীয় প্রার্থী জেলা মহানগর জামায়াতে আমীর মাঃ আবুল কালাম আজাদ ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। নির্বাচনী মাঠে প্রচরণায় এগিয়ে আছেন আ.লীগের প্রার্থী আক্তারুজ্জামান বাবু। তার ব্যানার -পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো নির্বাচনী এলাকা। অন্যদিকে মাইকে বিভিন্ন গানের সুর নকল করে চলছে দলের, প্রার্থীর গুণকীর্তন ও ভোট প্রার্থনা। সেই তুলনাই ধানের শীষের প্রচার -প্রচারণা সীমিত। প্রচার – প্রচারণা নেই বললেই চলে। এখনো পুরো নির্বাচনী এলাকায় চোখে পড়ছে তাদের সিমীত পোস্টার। আর মাইকিং তো শোনাই যাইনা। তবে এ বিষয়ে বিএনপি ও জামায়াত নেতাদের অভিযোগ, তাদের পোস্টার ছিড়ে ফেলাসহ প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি শরিফুল আলম মনা বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন তাই আমাদের কৌশলী প্রচার -প্রচারণা চালাতে হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় ভয় ভিতি ও নির্বাচনী অফিস স্থাপনে বাঁধা প্রদান করা হচ্ছে। দেয়া হচ্ছে গায়েবী মামলা।আমাদের নেতা কর্মীকে থাকতে হচ্ছে দৌড়ের উপর। তার পরও আমরা আশা রাখি সুষ্ঠু ভোট হলে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী ব্যাপক ভোটে জয়ী হবেন।

কয়রা উপজেলা আ.লীগ সভাপতি জি এম মহাজিন রেজা বলেন, ধানের শীষের প্রচার – প্রচারণায় কোনো বাধা দেয়া হচ্ছে না। তারা বুঝতে পারছে তাদের সাধারণ মানুষ আর চাইনা। তা ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করছে কিন্তু তাতে ও তারা ক্ষমতায় আসতে পারবে না জনগণ বোঝে আর ৩০ তারিখ সেটা তারা বুঝিয়ে দেবে। সে কারণে তারা প্রচারণায় নামতে ভয় পাচ্ছে।

কয়রা বাজার ব্যবসায়ী চিকিৎসক হেলাল উদ্দিন একজন সাধারণ ভোটার তিনি বলেন খুলনা ০৬ (কয়রা -পাইকগাছা ) আসনে ভোটাররা প্রচার -প্রচারণায় বাধাবিঘ্ন, হানাহানি চাই না। সব দলের প্রচার -প্রচারণা দেখে উৎসব মুখর পরিবেশে একজন যোগ্য প্রার্থী বেছে নিতে চাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




খুলনা-৬ আসনে প্রচারণায় এগিয়ে আ.লীগ, কৌশলী প্রচারণায় বিএনপি -জামায়াত

আপডেট সময় : ১২:০৯:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

 

ওবায়দুল কবির,কয়রা (খুলনা) থেকেঃ আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে খুলনা ০৬ (কয়রা -পাইকগাছা ) আসনে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। হাওয়ায় দুলছেন নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থী এবং সমর্থকরা।

তবে নির্বাচনী মাঠে প্রার্থীদের মধ্যে প্রচার প্রচারণায় ও গণসংযোগে এগিয়ে আওয়ামীলীগ। অন্যদিকে কৌশলী প্রচারণায় রয়েছেন বিএনপি -জামায়াত নেতারা। কয়রা -পাইকগাছার ১৭টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত এ আসনে এবার ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৯২ জন।এ আসনে আ.লীগ এর প্রার্থী নতুন মুখ জেলা আ.লীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু।

 

 

অপর দিকে বিএনপি দলীয় প্রার্থী জেলা মহানগর জামায়াতে আমীর মাঃ আবুল কালাম আজাদ ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। নির্বাচনী মাঠে প্রচরণায় এগিয়ে আছেন আ.লীগের প্রার্থী আক্তারুজ্জামান বাবু। তার ব্যানার -পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো নির্বাচনী এলাকা। অন্যদিকে মাইকে বিভিন্ন গানের সুর নকল করে চলছে দলের, প্রার্থীর গুণকীর্তন ও ভোট প্রার্থনা। সেই তুলনাই ধানের শীষের প্রচার -প্রচারণা সীমিত। প্রচার – প্রচারণা নেই বললেই চলে। এখনো পুরো নির্বাচনী এলাকায় চোখে পড়ছে তাদের সিমীত পোস্টার। আর মাইকিং তো শোনাই যাইনা। তবে এ বিষয়ে বিএনপি ও জামায়াত নেতাদের অভিযোগ, তাদের পোস্টার ছিড়ে ফেলাসহ প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি শরিফুল আলম মনা বলেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন তাই আমাদের কৌশলী প্রচার -প্রচারণা চালাতে হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় ভয় ভিতি ও নির্বাচনী অফিস স্থাপনে বাঁধা প্রদান করা হচ্ছে। দেয়া হচ্ছে গায়েবী মামলা।আমাদের নেতা কর্মীকে থাকতে হচ্ছে দৌড়ের উপর। তার পরও আমরা আশা রাখি সুষ্ঠু ভোট হলে বিএনপি মনোনিত প্রার্থী ব্যাপক ভোটে জয়ী হবেন।

কয়রা উপজেলা আ.লীগ সভাপতি জি এম মহাজিন রেজা বলেন, ধানের শীষের প্রচার – প্রচারণায় কোনো বাধা দেয়া হচ্ছে না। তারা বুঝতে পারছে তাদের সাধারণ মানুষ আর চাইনা। তা ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করছে কিন্তু তাতে ও তারা ক্ষমতায় আসতে পারবে না জনগণ বোঝে আর ৩০ তারিখ সেটা তারা বুঝিয়ে দেবে। সে কারণে তারা প্রচারণায় নামতে ভয় পাচ্ছে।

কয়রা বাজার ব্যবসায়ী চিকিৎসক হেলাল উদ্দিন একজন সাধারণ ভোটার তিনি বলেন খুলনা ০৬ (কয়রা -পাইকগাছা ) আসনে ভোটাররা প্রচার -প্রচারণায় বাধাবিঘ্ন, হানাহানি চাই না। সব দলের প্রচার -প্রচারণা দেখে উৎসব মুখর পরিবেশে একজন যোগ্য প্রার্থী বেছে নিতে চাই।