ঢাকা ১১:০২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মির্জাগঞ্জ এলজিইডি প্রকৌশলী আশিকুরের ঘুস-দুর্নীতি! Logo দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত ঊর্ধ্বগতি ; বিপাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা Logo পরিবেশের জন্য ই-বর্জ্য হুমকি স্বরূপ ; তা উত্তরণের উপায় Logo বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ Logo ঐতিহ্যবাহী সোহরাওয়ার্দী কলেজ সাংবাদিক সমিতির কমিটি গঠন Logo চেয়ারম্যানের আহ্লাদে বেপরোয়া বিআইডব্লিউটিএ‘র কর্মচারি পান্না বিশ্বাস! Logo রাজউকে বদলী ও পদায়নে ভয়ংকর দুর্নীতি ফাঁস: নেপথ্য নায়ক প্রধান প্রকৌশলী  Logo কুবির শেখ হাসিনা হলের গ্যাস লিক, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা Logo ইন্টার্ন চিকিৎসকের হাত-পা ভেঙে দিলেন সহকর্মীরা Logo ঐতিহ্যবাহী শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে অফিসার্স কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত 




সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে ধাওয়া পালটা ধাওয়া

প্রতিনিধি, সিলেট
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৬:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৩ ২৭ বার পড়া হয়েছে

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ চলছে। বিকেল সাড়ে ৪টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শাহ এএমএস কিবরিয়া হলে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছিল।

 

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের কর্মিসভা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এমাদুল হোসাইন গ্রুপ এবং সহ-সভাপতি শরীফ হোসাইন ও সাব্বির মোল্লা গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষ হচ্ছে।

 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এমাদুল হোসাইন বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ছাত্রলীগের কর্মিসভা হবে। দুপুর আড়াইটায় কর্মিসভা শুরুর আগে বাধা দেয় সহ-সভাপতি শরীফ হোসাইন, সাব্বির মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আরমান হোসাইন, আকাশ ভূইয়া ও প্রান্ত ইসলামের নেতৃত্ব একটি দল।

 

এতে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ বেধে যায়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি আবাসিক হলে থেকে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা পরস্পরকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। এতে উভয় গ্রুপের পাঁচজন আহত হন।

একপর্যায়ে সহ-সভাপতি সাব্বির মোল্লা ও তার অনুসারী জুনায়েদ আহমেদ হযরত শাহপরাণ (রহ.) হলে ঢুকে সভাপতি আশিকুর রহমানের পক্ষের কর্মীদের কয়েকটি কক্ষ ভাঙচুর করেন।

 

খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পাশাপাশি সিলেট মহানগর পুলিশের একটি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নিয়েছে।

 

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে সংঘর্ষে লিপ্ত দুই গ্রুপের নেতাদের মোবাইলে কল দিলে তারা রিসিভ করেননি।

বিকেল পৌনে ৫টার দিকে প্রক্টর ড. মনিরুল ইসলাম সোহাগ সাংবাদিকদের বলেন, প্রক্টরিয়াল বডি এবং শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করেছি। এখন শুধু কিবরিয়া হলে কিছু ঝামেলা চলছে। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে আমরা এই হলের পরিস্থিতিও শান্ত করে ফেলবো।

তিনি আরও বলেন, প্রয়োজন পড়েনি বলে আমরা ক্যাম্পাসে পুলিশকে ডাকিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে ধাওয়া পালটা ধাওয়া

আপডেট সময় : ০৫:৩৬:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী ২০২৩

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ চলছে। বিকেল সাড়ে ৪টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শাহ এএমএস কিবরিয়া হলে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছিল।

 

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের কর্মিসভা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এমাদুল হোসাইন গ্রুপ এবং সহ-সভাপতি শরীফ হোসাইন ও সাব্বির মোল্লা গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষ হচ্ছে।

 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এমাদুল হোসাইন বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে কৃষি অর্থনীতি ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ছাত্রলীগের কর্মিসভা হবে। দুপুর আড়াইটায় কর্মিসভা শুরুর আগে বাধা দেয় সহ-সভাপতি শরীফ হোসাইন, সাব্বির মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আরমান হোসাইন, আকাশ ভূইয়া ও প্রান্ত ইসলামের নেতৃত্ব একটি দল।

 

এতে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ বেধে যায়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি আবাসিক হলে থেকে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা পরস্পরকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। এতে উভয় গ্রুপের পাঁচজন আহত হন।

একপর্যায়ে সহ-সভাপতি সাব্বির মোল্লা ও তার অনুসারী জুনায়েদ আহমেদ হযরত শাহপরাণ (রহ.) হলে ঢুকে সভাপতি আশিকুর রহমানের পক্ষের কর্মীদের কয়েকটি কক্ষ ভাঙচুর করেন।

 

খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। পাশাপাশি সিলেট মহানগর পুলিশের একটি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নিয়েছে।

 

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে সংঘর্ষে লিপ্ত দুই গ্রুপের নেতাদের মোবাইলে কল দিলে তারা রিসিভ করেননি।

বিকেল পৌনে ৫টার দিকে প্রক্টর ড. মনিরুল ইসলাম সোহাগ সাংবাদিকদের বলেন, প্রক্টরিয়াল বডি এবং শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করেছি। এখন শুধু কিবরিয়া হলে কিছু ঝামেলা চলছে। অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে আমরা এই হলের পরিস্থিতিও শান্ত করে ফেলবো।

তিনি আরও বলেন, প্রয়োজন পড়েনি বলে আমরা ক্যাম্পাসে পুলিশকে ডাকিনি।