ঢাকা ০৬:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo মির্জাগঞ্জ এলজিইডি প্রকৌশলী আশিকুরের ঘুস-দুর্নীতি! Logo দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত ঊর্ধ্বগতি ; বিপাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা Logo পরিবেশের জন্য ই-বর্জ্য হুমকি স্বরূপ ; তা উত্তরণের উপায় Logo বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ Logo ঐতিহ্যবাহী সোহরাওয়ার্দী কলেজ সাংবাদিক সমিতির কমিটি গঠন Logo চেয়ারম্যানের আহ্লাদে বেপরোয়া বিআইডব্লিউটিএ‘র কর্মচারি পান্না বিশ্বাস! Logo রাজউকে বদলী ও পদায়নে ভয়ংকর দুর্নীতি ফাঁস: নেপথ্য নায়ক প্রধান প্রকৌশলী  Logo কুবির শেখ হাসিনা হলের গ্যাস লিক, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা Logo ইন্টার্ন চিকিৎসকের হাত-পা ভেঙে দিলেন সহকর্মীরা Logo ঐতিহ্যবাহী শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে অফিসার্স কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত 




কমলগঞ্জে সড়কের গাছ কেটে নিচ্ছে প্রভাবশালীরা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১২:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯ ৪১ বার পড়া হয়েছে

 

শাহাবুদ্দিন, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) থেকেঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরকারি রাস্তার দু’পাশের গাছ অবাধে কেটে নিচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই তারা প্রতিনিয়ত রাস্তার দু’পাশের গাছ কেটে উজাড় করে দিচ্ছে। এতে প্রতিবছর সরকারের লাখ লাখ টাকার মূল্যবান গাছ লুটপাট হয়ে যাচ্ছে।

নির্বিচারে গাছ কাটায় পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা। এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

কমলগঞ্জ উপজেলার ৫নং সদর ইউনিয়নের বন গাও সরইবাড়ী সড়কে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, আকাশমনি (একাশিয়া) ও বেলজাম সহ বেশ কিছু গাছ গোড়া থেকে করাত দিয়ে কেটে নেওয়া হয়েছে। আবার অনেক গাছ ডালাপালা কেটে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রতি রাতেই চোরেরা সরকারি গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে।

গত কয়েক মাসে এই সড়ক থেকে প্রায় শতাধিক গাছ চুরি হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক বেশ কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন, গত ১৭ ই জানুয়ারি, এর আগে ৯ ও ৪ ই জানুয়ারি বিভিন্ন সড়কের দুই পাশের মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে গেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। যার আনুমানিক মুল্য প্রায় কয়েক লক্ষ্য টাকা।

কেউ রাতের আঁধারে, আবার কেউ দিনের বেলায় প্রকাশ্যে এসব গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছেন বলে তারা জানান। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোন কাজ হয়নি বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

স্থানীয় সচেতন নাগরিকরা বলছেন, রাস্তার পাশ থেকে নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন পরিবেশের বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে। পরিবেশ রক্ষায় সব ধরনের বৃক্ষ নিধন বন্ধ করতে হবে। তা হলেই পরিবেশ তার ভারসাম্য রক্ষা করতে পারবে।

স্থানীয়রা, রাতের আঁধারে অবাধে গাছ কেটে নেওয়ার অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এবং অবাধে গাছ নিধন ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :




কমলগঞ্জে সড়কের গাছ কেটে নিচ্ছে প্রভাবশালীরা

আপডেট সময় : ০৯:১২:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯

 

শাহাবুদ্দিন, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) থেকেঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সরকারি রাস্তার দু’পাশের গাছ অবাধে কেটে নিচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই তারা প্রতিনিয়ত রাস্তার দু’পাশের গাছ কেটে উজাড় করে দিচ্ছে। এতে প্রতিবছর সরকারের লাখ লাখ টাকার মূল্যবান গাছ লুটপাট হয়ে যাচ্ছে।

নির্বিচারে গাছ কাটায় পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা। এ ব্যাপারে স্থানীয় প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

কমলগঞ্জ উপজেলার ৫নং সদর ইউনিয়নের বন গাও সরইবাড়ী সড়কে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, আকাশমনি (একাশিয়া) ও বেলজাম সহ বেশ কিছু গাছ গোড়া থেকে করাত দিয়ে কেটে নেওয়া হয়েছে। আবার অনেক গাছ ডালাপালা কেটে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রতি রাতেই চোরেরা সরকারি গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে।

গত কয়েক মাসে এই সড়ক থেকে প্রায় শতাধিক গাছ চুরি হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক বেশ কয়েকজন অভিযোগ করে বলেন, গত ১৭ ই জানুয়ারি, এর আগে ৯ ও ৪ ই জানুয়ারি বিভিন্ন সড়কের দুই পাশের মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে গেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। যার আনুমানিক মুল্য প্রায় কয়েক লক্ষ্য টাকা।

কেউ রাতের আঁধারে, আবার কেউ দিনের বেলায় প্রকাশ্যে এসব গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছেন বলে তারা জানান। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোন কাজ হয়নি বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

স্থানীয় সচেতন নাগরিকরা বলছেন, রাস্তার পাশ থেকে নির্বিচারে বৃক্ষ নিধন পরিবেশের বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে। পরিবেশ রক্ষায় সব ধরনের বৃক্ষ নিধন বন্ধ করতে হবে। তা হলেই পরিবেশ তার ভারসাম্য রক্ষা করতে পারবে।

স্থানীয়রা, রাতের আঁধারে অবাধে গাছ কেটে নেওয়ার অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি এবং অবাধে গাছ নিধন ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।