• ১৭ই এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৪ঠা বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ছিন্নমূল অসহায় মানুষের পাশে “শান্তিসংঘ”

সকালের সংবাদ ডেস্ক;
প্রকাশিত মার্চ ৬, ২০২১, ১৮:৩০ অপরাহ্ণ
ছিন্নমূল অসহায় মানুষের পাশে “শান্তিসংঘ”

বেলায়েত হোসেনঃ “শান্তিসংঘ” একটি অরাজনৈতিক সামাজিক সেবামূলক সংগঠন। এই সংগঠনটি প্রতি শুক্রবার অসহায়, ছিন্নমূল মানুষদের মধ্যে একবেলা খাবার বিতরণ করে থাকেন।

গতকাল শুক্রবার (৫ মার্চ ২০২১) অন্যান্য দিনের মতো রাজধানীর কমলাপুর রেল স্টেশনের বাহিরে রাস্তা কিংবা ফুটপাতে থাকা ছিন্নমূল মানুষদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করেছেন। তারা প্রতি শুক্রবার ৯০ থেকে ১০০ জন অভুক্ত ছিন্নমূল মানুষকে একবেলা ভালো খাবারের ব্যবস্থা করেন। প্রতি শুক্রবারে রাত নয়টা টা থেকে দশটার ভিতরে তাদের জন্য তেহারি, বিরিয়ানি, খিচুড়ির ব্যবস্থা করা হয়।

“শান্তিসংঘ” নামে এই সংগঠনটির মূল উদ্যোক্তা মোঃ সোহেল রানা একজন গণমাধ্যমকর্মী ও দক্ষ সংগঠক। সোহেল রানা তার নিজস্ব অর্থায়নে প্রথমে কার্যক্রমটি শুরু করেন। এরপর তার এই মহতী উদ্যোগ গ্রহণের কারণে তার সাথে রাজধানীর মহাখালী আইপিএইচ স্টাফ কোয়ার্টারের বিভিন্ন হৃদয়বান ব্যক্তিরা যুক্ত হোন। এরপর থেকেই শুরু হয় ব্যাপকভাবে ছিন্নমূল মানুষদের জন্য কাজ করার আরো বেশি আগ্রহ। যারা এই সংগঠনে যুক্ত আছেন, তাদের মধ্যে স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ লিটন মিয়া, মোঃ মজিবর বাবুর্চি, মোঃ নজরুল, মোঃ স্বপন এবং দৈনিক বাংলাদেশের আলো পত্রিকা স্টাফ রিপোর্টার মোঃ বেলায়েত হোসেন। এদের সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও সহযোগিতায় বর্তমানে “শান্তিসংঘ” মানবিক এই সংগঠনটি পূর্ণাঙ্গরূপে আত্মপ্রকাশ করেছে।

সংগঠনের মূল উদ্যোক্তা একজন গণমাধ্যমকর্মী মোঃ সোহেল রানা বলেন, রাস্তার পাশে, ফুটপাতে, কিংবা রেললাইনের প্লাটফর্মে শুয়ে থাকা অসহায়, গৃহহীন, পিতা-মাতা হীন, দরিদ্র, ছিন্নমূল মানুষগুলো যখন কারো কাছে হাত পেতেও ১টি টাকা পয়সাও পায় না, তখন তাদেরকে সারাদিন উপোস থাকতে হয়। আমরা যারা সামর্থ্যবান আমাদের কাছে হাত পেতে চাইলেও অনেক সময় ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে বৃদ্ধা অসহায় মা বোনকে আমরা একটা পয়সা দিয়েও সহযোগিতা করি না, তখন এই লোকগুলো না খেয়ে থাকে। বিভিন্ন সময়ে সরোজমিনে তাদের এই দুর্দশা দেখার সৌভাগ্য আমার হয়েছে। আর তখন থেকেই আমার ভিতর একটি ইচ্ছে কাজ করতে ছিল যে, আল্লাহপাক আমাকে যদি তৌফিক দেন, তাহলে প্রতিনিয়ত না পারি, সপ্তাহে অন্তত একদিন এইসব ছিন্নমূল মানুষগুলোর জন্য এক বেলা খাবারের ব্যবস্থা করব।

আজ আমার উদ্যোগ শুরু হলেও উপরোক্ত ব্যক্তিদের সহযোগিতার মাধ্যমে কাজটা করতে পারতেছি এজন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞ। আমি/আমরা যতদিন সাধ্যে কুলায় আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আমরা যেন এইসব ছিন্নমূল মানুষদের জন্য প্রতি শুক্রবার অথবা সপ্তাহের দুইদিন একটু ভালো খাবারের ব্যবস্থা করতে পারি।

উল্লেখ্য, গত দুই মাস যাবৎ আমরা প্রতি শুক্রবার প্রায় দুইশত ছিন্নমূল মানুষের জন্য খাবারের আয়োজন করে আসছি। ভবিষ্যতেও আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এক্ষেত্রে, বলতে বাধা নেই, কোন বৃত্তবান, স্বহৃদয়বান ব্যক্তি যদি স্বেচ্ছায় আমাদের এই সংগঠনের সাথে যুক্ত হতে চান, তাহলে আমাদের তরফ থেকে কোনো বাধা-নিষেধ নেই। মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য। সকলেই ছিন্নমূল, অসহায় মানুষদের জন্য সহযোগিতা করে সংগঠনের সাথে যুক্ত থাকতে পারবেন। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে “শান্তিসংঘ”র একটি পেইজ আছে তার সাথে যুক্ত হয়ে আমাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করতে পারেন। কেউ আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে চাইলে আমাদের নিম্নোক্ত একটি নাম্বারে বিকাশ করা আছে। প্রয়োজনে সেই বিকাশের মাধ্যমে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন। ( ০১৭১১-২৯৫৮০০ বিকাশ) । সেজন্যই আমাদের এই সংগঠনের মূল স্লোগান রাখা হয়েছে, “মানবতার শুরুটা হোক আপনার থেকে”।