রং নম্বরে প্রেম করায় তালাক দিলেন স্বামী, অবশেষে ধর্ষণের শিকার

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:০৫ অপরাহ্ণ, ১৯ আগস্ট ২০২০

জেলা প্রতিনিধি:

মুঠোফোনের রং নম্বরে পরিচয়, সেই সূত্রে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। বিষয়টি জানতে পেরে স্ত্রীকে তালাক দেন স্বামী। তালাক দেয়ার পর গৃহবধূ তার নানার বাড়িতে আশ্রয় নেন। সেখানে চলতে থাকে প্রেমিকের সঙ্গে প্রেম।

এরপর বিয়ের প্রলোভনে বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে রাতভর প্রেমিকাকে ধর্ষণ করেন প্রেমিক রতন মিয়া। ধর্ষণের পর বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে রতন মিয়াকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে রতন মিয়াকে পুলিশে দেয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার রাজিবপুর ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রতন মিয়া (২৪) ওই গ্রামের আলী নেওয়াজের ছেলে। রাতেই ওই নারী বাদী হয়ে রতন মিয়াকে আসামি করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। বুধবার (১৯ আগস্ট) ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল করেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেই সঙ্গে রতন মিয়াকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ছয় মাস আগে অপরিচিত নম্বর থেকে কল আসে গৃহবধূর মুঠোফোন নম্বরে। মুঠোফোনের রং নম্বরে পরিচয় হয় রতন মিয়ার সঙ্গে। সেই সূত্রে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। একপর্যায়ে স্বামী জেনে ফেলে তাকে তালাক দেন। এরপর থেকে ওই নারী নানার বাড়িতে আশ্রয় নেন। সেখান থেকে বিয়ের কথা বলে বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে রাতভর তাকে ধর্ষণ করেন রতন মিয়া।

ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দ বলেন, বিয়ের প্রলোভনে ওই নারীকে বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ শেষে পালিয়ে যেতে চাইলে রতন মিয়াকে আটক করে পুলিশে দেয় এলাকাবাসী। এ ঘটনায় ওই নারী মামলা মামলা করেছেন। বুধবার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রতন মিয়াকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :