সবই কেড়ে  নিল করোনা ভাইরাস

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:১৩ অপরাহ্ণ, ৩০ জুন ২০২০

অনলাইন ডেস্ক; করোনার প্রভাবে কাজ হারানোর পর, এখন বাসস্থানও হারানো শুরু করেছে মানুষ। অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের হাত ধরে মানবিক বিপর্যয় নিয়ে এসেছে করোনাভাইরাস। কাজ হারানোর পর, এখন বাসস্থানও হারানো শুরু করেছে মানুষ। অনিশ্চিত জীবন নিয়ে ঢাকা ছেড়েছে বহুজন। ভাড়ার আয় বন্ধ হওয়ায় বিপাকে আছেন অনেক বাড়িওয়ালা। তবে, এই বিপদ শুধু ভাড়াটিয়া আর বাড়ির মালিকেরই নয়, বরং গোটা অর্থনীতির।

বিশেষজ্ঞদের শঙ্কা, শহর ছাড়ার পথ ধরে দীর্ঘস্থায়ী হবে বেকার সমস্যা।

বাসা ছেড়েছেন। যাওয়ারও জায়গা নেই। কমলাপুরের প্লাটফর্মে আছেন ভোর থেকে। যদিও চট্টগ্রামের ট্রেন বিকেলে। সদ্য বাসস্থান হারানো আরো কয়েকজন আছেন। এই শহর নিজের হয়নি বহুবছরেও। জন্মস্থান অন্তত ফেরাবে না, সেই আশায়, মানুষগুলোর প্রতীক্ষা বাড়িমুখী ট্রেনের।

ঢাকার আবাসিক এলাকার দেয়ালে এখন গা ভর্তি টু-লেট বিজ্ঞপ্তি। বাড়ছে প্রতিদিনই। পুরোনো বাসিন্দা হারিয়ে বাড়িগুলোও নতুন ভাড়াটিয়ার অপেক্ষায়। রামপুরা মহানগর প্রকল্পের একটি বাসাও পাওয়া গেলো না যেখানে টু-লেট ঝুলছে না। বাড়ি ছাড়ার দিন গুনছেন নতুন অনেকেই।

অবশ্য কোনো কোনো বাড়িওয়ালার দাবি, ভাড়া কমিয়েও লাভ হচ্ছে না। নিরুপায় হয়েই নতুন ভাড়াটিয়া খুঁজছেন। আর যারা ঢাকা ছেড়েছেন, তাদের অনেকেই এখনও নিশ্চিত জীবনের খোঁজ পাননি।

কাজ হারানো, ঘর হারানো মানুষগুলোর আগামী জীবনে শিগগিরই স্বাচ্ছন্দ্য আসছেনা। তবে, এতগুলো মানুষের জীবনমানের এই বিপর্যয়ের পেছনে সরকারের প্রণোদনা কৌশলের দায়ও দেখছেন অর্থনীতিবিদরা।

ভাড়াটিয়া পরিষদ বলছে, কাজ হারিয়ে ঢাকা ছেড়েছে ৫০ হাজার মানুষ। তাদের প্রত্যেকের প্রত্যক্ষ অবদানে ভর করেই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির স্বপ্ন দেখছিলো বাংলাদেশ।

আপনার মতামত লিখুন :