• ২৩শে এপ্রিল ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অমর একুশে বইমেলায় রম্য লেখক ও শিশু সাহিত্যিক সত্যজিৎ বিশ্বাসের বইগুলি

songbad18
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৯, ১৭:৩৯ অপরাহ্ণ
অমর একুশে বইমেলায় রম্য লেখক ও শিশু সাহিত্যিক সত্যজিৎ বিশ্বাসের বইগুলি

 

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি: চাকরির পাশাপাশি প্রিয় লেখক ও স্বনামধন্য মানুষদের সাথে যাত্রা, আয়ত্বে নেওয়া সেই মানুষগুলোর গুণ ও গুণাবলি| লেখা পাঠিয়ে দেই দেশের সব পত্রিকায়, কতৃপক্ষও সেগুলো সিলেক্ট করে ছাপিয়ে দেয় | একটু লেখার নেশা থেকে আজ অনেক গুলো বইয়েরই লেখক হয়ে যাওয়া | ”মোবাইল নয়, বই যেন হয় শিশুদের বিকাশের মাধ্যম” এই মন মানসিকতা নিয়েই এবারের বই মেলায় শিশুদের উপযোগী বই আনা- বলছিলেন রম্য লেখক ও শিশু সাহিত্যিক সত্যজিৎ বিশ্বাস|

সত্যজিৎ বিশ্বাসের জম্ম ১লা মার্চ, ১৯৭৪, ময়মনসিংহে | অমর একুশে বই মেলায় সত্যজিৎ বিশ্বাসের আমরা সবাই রাজা, আমি পারবো, ইরেজার ভূত, গল্পগুলো রম্য নামে একক বই ইতিমধ্যে একুশে বইমেলার বিভিন্ন প্রকাশনার স্টলে স্থান পেয়েছে| উল্লেখযোগ্য বইগুলো নিয়েই ধারাবাহিক প্রতিবেদন রম্য লেখকের বইগুলো:

আমরা সবাই রাজা

— আমাদের শৈশব কেটেছে অত্যন্ত আনন্দে। তবে পড়ালেখা ছিল চিরতার রস। চোখ, মুখ বুঁজে খেয়ে ফেলতে হবে। এরমধ্যে আবার আনন্দ খোঁজার কী আছে? গল্পের বই পড়তে পড়তে মনে প্রশ্ন জাগতো, আচ্ছা বনে একজন রাজা হতে হবে কেন? একজন রাজা কী সব দিক থেকে সেরা হতে পারে? যে শরীরে বড় হয়, সে কী বুদ্ধিতেও বড় হয়? তাহলে কে রাজা হবে, যে সবচেয়ে বেশি শক্তিমান নাকি বুদ্ধিমান? আচ্ছা, এমনটা হলেই বা কেমন হয়, যদি সবাই রাজা হয়? বই হোক আনন্দের- এই প্রত্যয় নিয়ে বাচ্চাদের সুন্দর শৈশব গড়ার প্রচেষ্টায় সমৃদ্ধ এই বই । পৃথিবী বইয়ের হোক আমি বইয়ের লোক। একুশে বইমেলায় বিদ্যানন্দ প্রকাশনী থেকে আসছে| শিশুতোষ গল্পের বই- আমরা সবাই রাজা। বইয়ের প্রচ্ছদ ও অলংকরণে- আহসান হাবীব। স্টল নাম্বার- ৫৪ (বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ)।

আমি পারবো

— আমি পারবো পৃথিবীর সব মানুষ অসীম ক্ষমতা নিয়ে জন্মায়। মজার ব্যাপার হলো, অনেকেই জানে না তাঁর এই অসীম ক্ষমতার কথা। আরো অনেকের মতো রনিও ভাবে তার দ্বারা হয়ত কোন কাজই সম্ভব না। কোন এক যাদু স্পর্শে সে বদলে যায়। সব সময় পারবো না, পারবো না, বলতে থাকা রনি একদিন বলে ওঠে ‘আমি পারবো’। একুশে বইমেলায় ভিন্নচোখ প্রকাশনী থেকে আসছে শিশুতোষ গল্পের বই- আমরা সবাই রাজা। বইয়ের প্রচ্ছদ ও অলংকরণে- আহসান হাবীব। স্টল নাম্বার- ৪০৭।

ইরেজার ভূত

— ইরেজার ভূত ভূত মানেই ঘাড় মটকাতে আসবে- এ কথাটা ছোটবেলাতেই কে যে আমাদের মাথায় ডাউনলোড করে দিয়েছিল, কে জানে? মানুষের মধ্যে যদি ভালো মন্দ থেকে থাকে মানে ভালো মানুষ, খারাপ মানুষ থাকে তাহলে ভূতের মধ্যে কেন ভালো ভূত, খারাপ ভূত থাকবে না? ভালো ভূতের বাচ্চা ভুতুল কি করে ব্যাক বেঞ্চার সোহানকে ফাস্ট বেঞ্চ এর ছাত্র বানিয়ে দিলো, সেটা জানতে হলে পড়তে হবে ইরেজার ভূত। একুশে বইমেলায় প্রিয়মুখ প্রকাশন থেকে আসছে শিশুতোষ গল্পের বই- ইরেজার ভূত। বইয়ের প্রচ্ছদ ও অলংকরণে- আহসান হাবীব। স্টল নাম্বার- ১৭৬-১৭৭।

গল্পগুলো রম্য

— বইয়ের নামঃ গল্পগুলো রম্য রাতের পর রাত জেগে রম্যগল্প লেখার চেষ্টা করি। এই জিনিষ প্রসবে যে এত বেদনা, কে জানতো! লেখার চেয়ে মশা মারা হয় বেশি। ধুত্তুরি বলে লেখা বাদ দেবো-দেবো যখন করছি, হঠাৎ মনে হলো আরে তাই তো, আমার রম্যগল্প পড়ার লোভে পড়ে প্রাণনাশের আশংকা জেনেও কত মশা যে ছুটে আসে, এটা তো মিথ্যা না। ওদের এত বড় আত্মত্যাগের কোনো ডকুমেন্ট থাকবে না, তাই হয়? ‘গল্পগুলো রম্য’ এর কোনো গল্প পড়ে যদি ভুলেও আপনার দাঁত বের হয়ে আসে, সেই কৃতিত্ত্বের দাবীদার ওরাই। এই বইয়ের কিছু গল্প বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ছাপা হয়েছে বিভিন্ন সময়। যা গল্পের নীচে সময়, তারিখসহ উল্লেখ করে দেওয়া হয়েছে। সবগুলো গল্প পড়ে আপনি হাসবেন, এতটা দুঃসাহস করিনা। এর থেকে বড়জোর একটা কিংবা অর্ধেকটা গল্প যদি আপনার মুখে নির্মল হাসি এনে দিতে পারে, তবেই নিজেকে স্বার্থক বলে মনে করব। একুশে বইমেলায় প্রিয়মুখ প্রকাশন থেকে আসছে রম্য গল্পের বই- গল্পগুলো রম্য। বইয়ের প্রচ্ছদ ও অলংকরণে- আহসান হাবীব। স্টল নাম্বার- ২৭২।

এছাড়াও সত্যজিৎ বিশ্বাসের একুশে বইমেলায় যেসকল বই পাওয়া যাচ্ছে, জোকে জোঁকারণ্য (মৌলিক জোকস সমগ্র, নওরোজ কিতাবিস্তান), রাম গরুড়ের ছানা হাসতে তাদের মানা (মৌলিক জোকস, প্রিয়মুখ প্রকাশন), জলছাপ (ছোটগল্প সমগ্র, নওরোজ কিতাবিস্তান), ভালোবাসার অনেক রঙ (ছোটগল্প সমগ্র, শুদ্ধস্বর প্রকাশনী), শ্রেয়সীর ডাইরী (কিশোর উপন্যাস, শব্দভূমি প্রকাশনা), আমি পারবো (শিশুতোষ গল্প, ভিন্নচোখ প্রকাশনী) |

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:১৭
  • ১২:০১
  • ৪:৩০
  • ৬:২৬
  • ৭:৪৩
  • ৫:৩৩