করোনা ছোবলে পৃথিবীজুড়ে মৃত্যুর মিছিল, মানব গোষ্ঠীর অনুভব _ এইচ আর শফিক

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ, ২৯ মার্চ ২০২০

করোনা ভাইরাস! এই মুহূর্তে পৃথিবীর সবচেয়ে আতঙ্ক ও মৃত্যুদূতের নাম। যে শক্তিশালী ভাইরাস পৃথিবীর কোন শক্তি বা শক্তিশালী ব্যক্তি পরোয়া করেনা। চীনের উহান থেকে শুরু করেছে তার মৃত্যুলীলা। যত দিন যাচ্ছে এই মহামারী ভাইরাস পুরো পৃথিবীটাকে ততই মৃত্যুপুরী আর আতঙ্কে পরিণত করছে। বৃটেনের রানী সংক্রমণ আতঙ্কে আছেন হোম কয়ারেইন্টেনে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর শরীরের ধরা পড়েছে করোনা সংক্রমণ। এছাড়াও পৃথিবীর অনেক শক্তিশালী ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছে এই মরণব্যাধি ভাইরাসে। আপনার যত শক্তি ই থাক না কেন পরাজিত হবেন এই ভাইরাস নামক মৃত্যু দূতের সংক্রমণে।

যুগে যুগে পৃথিবীতে অসংখ্য দুর্যোগ, মহামারী, সংক্রমণ ভাইরাস মৃত্যু দূতের আগমন ঘটেছে। সময়ের সাথে সে সকল দুর্যোগ মহামারী জয় করেছে মানবকূল। কিন্তু পৃথিবীতে এ পর্যন্ত সবচেয়ে ভয়ঙ্কর মহামারী সংক্রামক ব্যাধির নাম করোনাভাইরাস।
পৃথিবীর ইতিহাসে প্রতিটি মহামারী ও দুর্যোগের পরে পৃথিবী ঘুরে দাঁড়িয়েছে। প্রতিবার পৃথিবীর মানুষ শিখেছে নতুন কিছু। মানব জীবন ধারায় যুক্ত হয়েছে নতুন সভ্যতা। ঘটেছে নতুন নতুন আবিষ্কার। পৃথিবীর জনপদে দিনকে দিন রূপ পেয়েছে সচেতন জীবনধারার।
হয়তো পৃথিবীর মানব গোষ্ঠীর পাপাচার, সীমাহীন সীমালংঘন, শ্রেষ্ঠ মানব হয়েও অমানবিক হয়ে ওঠা সব পাপের পরিনাম হিসেবে মহান সৃষ্টিকর্তার ক্রোধে মানব গোষ্ঠীর ওপর মৃত্যুদূত হিসেবে পৃথিবীতে এসেছে এসব মুসিবত ব্যাধি ও মহামারী।
পৃথিবীর যে কোন বিপর্যয় মানবজীবনে যেকোনো দুর্যোগে। সে হোক মুসলিম, হোক হিন্দু, হোক বা খ্রিষ্টান, প্রতিটা মানুষের উচিত তার সৃষ্টিকর্তার প্রতি মস্তক অবনত করা। উচিত নিজেদের কৃতকর্ম পাপাচারের জন্য তওবা করা উচিত। সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি অপরূপ পৃথিবী আকাশ উজ্জ্বল গ্রহ_নক্ষত্র, তার থেকেও অপরূপ শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি মানবকুল। আর এই শ্রেষ্ঠ মানবকুলের সকল পাপাচার মহান সৃষ্টিকর্তা অবশ্যই ক্ষমা করবেন বলে দৃঢ় বিশ্বাস করি।
মহান সৃষ্টিকর্তার দয়ার শেষ নেই। তার রহমত ও দয়ার অন্ত নেই। তিনি তার প্রিয় ও শ্রেষ্ঠ সৃষ্টিকূল কে রক্ষা করবেন ইনশাআল্লাহ। পৃথিবীর মানুষ যতই পাপাচার ও গুনাহ্ করুক না কেনো তার থেকেও মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর দয়ার পরিমাণ অনেক বেশি।
এই মৃত্যু লীলা, মহামারী, এই আতঙ্ক পেরিয়ে মানব গোষ্ঠী আবারও ঘুরে দাঁড়াবে। পৃথিবী আবারো আগের মত নতুন কিছু সভ্যতা শিখবে। মানব জীবনে ফিরে আসবে নতুন সভ্যতা।

লেখক:  হাফিজুর রহমান শফিক _(গণমাধ্যমকর্মী)

আপনার মতামত লিখুন :