প্রধানমন্ত্রীর সাথে মিলান লোর্ম্বাদিয়া আ’লীগের নেতৃবৃন্দ সৌজন্যে সাক্ষৎ 

সকালের সংবাদ ডেস্ক;সকালের সংবাদ ডেস্ক;
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:১৯ অপরাহ্ণ, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

তুহিন মাহামুদ ইউরোপ প্রতিনিধিঃ

৭ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকালে হোটেল গাল্লিয়াতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্যে সাক্ষাৎ করেছে মিলান লোম্বারদিয়া আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। এ সময় ফুলেল শুভেচ্ছা জানান লোম্বারদিয়া আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল মান্নান মালিথা,সাধারণ সম্পাদক নাজমুল কবির জামান,লোম্বারদিয়া আওয়ামী লীগের সম্মানিত সদস্য এবং লোম্বারদিয়া আ’লীগ ( সাবেক) প্রস্তুুত কমিটির প্রধান আকরাম হোসেন,সহ সভাপতি খোরশেদ আলম,যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ শিপন,জামিল আহমেদ,মঞ্জুর হোসেন সাগর,সাংগঠনিক সম্পাদক আরফান শিকদার,মিলান মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি খান রহমান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান শিকদার এবং বাংলাদেশ কন্স্যুলেট জেনারেল মিলান কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ।

লোম্বারদিয়া আ’লীগের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র নিকট দাবী জানান মিলানে একটি স্হায়ী পূর্ণাঙ্গ স্কুল স্হাপন এবং পূণরায় মিলান থেকে ঢাকা বাংলাদেশ বিমান ফ্লাইট চালুর।
নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন,দেশের ভাবমূর্তি রক্ষার দ্বায়িত্ব আপনাদের।আপনারা সবাই মিলে মিশে থাকবেন।বঙ্গবন্ধুর জন্ম শত বার্ষিকীতেও আপনাদের ভূমিকা রয়েছে।
হোটেল থেকে বের হওয়ার মূহুর্তে সর্ব ইউরোপীয় আ’লীগ,ইতালি আ’লীগ,মিলান লোম্বারদিয়া আ’লীগ এবং ইতালি ছাত্র লীগের নেতাকর্মীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

এর পূর্বে বাংলাদেশ কন্স্যুলেট জেনারেল মিলান কর্মকর্তাদের সাথেও কুশল বিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবহান শিকদার ও তাঁর পত্নী, কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ ও তাঁর পত্নী , কনসাল শামসুল আহসান ও তাঁর পত্নী, কনসাল( শ্রম)রফিকুল ইসলাম,প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন,সুধীর, জাকির হোসেন সহ অন্যান্যরা।

উল্লেখ্য যে,গত ৪ ফেব্রুয়ারি ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কোন্তের আমন্ত্রণে রোম সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার ইতালি আর্লীগ আয়োজিত গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশ নেন এবং বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট মেয়ে শেখ রেহানা, প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে, ন্যাশনাল অ্যাডভাইজারি কাউন্সিল অব নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার অ্যান্ড অটিজম অব বাংলাদেশের চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান শিকদার, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ প্রমুখ।

রোমের ভিয়া দেল অ্যান্তারতাইদ এলাকায় ২৩ দশমিক ৯ কাঠা জায়গার ওপর বাংলাদেশ দূতাবাস অবস্থিত।

বেজমেন্টে দুই তলাসহ পাঁচতলা বিশিষ্ট বাংলাদেশ দূতাবাসের নিজস্ব এ চ্যান্সারি ভবন।

বাংলাদেশ দূতাবাস ভবনের এ নিজস্ব চ্যান্সারি ভবনের ফলে ইতালিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা আরও সহজে সেবা পাবেন।

উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী দূতাবাসের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন।

দুপুরে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন পালাচ্ছো চিগিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কোন্তের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে দুই প্রধানমন্ত্রী একসঙ্গে মধ্যাহ্নভোজেও অংশ নেন।

বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরকালীন আবাসস্থল পার্কো দেই প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেলে ব্যবসায়ী নেতারা সাক্ষাৎ করেছেন তার সঙ্গে। এরপর রাতে ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেন তিনি।

সফরের তৃতীয় দিন বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর দুপুরে ট্রেনে করে রোম থেকে মিলান সেন্ট্রাল ষ্টেশনে এসে পৌঁছান বিকাল ৪ঃ১০ টায়।

শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৪০মিনিটে আমিরাত এয়ারলাইন্সের ‘ইকে-২০৬’ ফ্লাইটে মিলান মেলপেনসা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা ১০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

এর আগে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টা) রোম আসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সফরসঙ্গীরা।

আপনার মতামত লিখুন :